২৯ জানুয়ারী ২০২৩, রবিবার, ০৯:৫৮:৪৩ অপরাহ্ন


জিন তাড়ানোর কথা বলে কিশোরীর শ্লীলতাহানি, মুয়াজ্জিন গ্রেফতার
অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট করা হয়েছে : ০৩-০৬-২০২২
জিন তাড়ানোর কথা বলে কিশোরীর শ্লীলতাহানি, মুয়াজ্জিন গ্রেফতার জিন তাড়ানোর কথা বলে কিশোরীর শ্লীলতাহানি, মুয়াজ্জিন গ্রেফতার


দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ঝাড়-ফুকের মাধ্যমে চিকিৎসার নামে শ্লীলতাহানির অভিযোগে মুয়াজ্জিন মো. আশিকুল ইসলামকে (৩৪) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯-এ কল পেয়ে বৃহস্পতিবার (২ জুন) রাত ১০টার দিকে ওই মুয়াজ্জিনকে সদরঘাট থানার পূর্ব মাদারবাড়ি এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানিয়েছেন সদরঘাট থানার ওসি মো. খাইরুল ইসলাম।

আশিকুল ইসলাম পূর্ব মাদারবাড়ি হাজী নসু মালুম মসজিদের মুয়াজ্জিন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ওসি জানান, কিশোরী পূর্ব মাদারবাড়ি এলাকায় থাকেন। নগরীর একটি হাইস্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্রী। গত কয়েকমাস ধরে অসুস্থ ছিলেন। চিকিৎসকদের শরণাপন্ন হওয়ার পরেও মেয়েকে সুস্থ করতে না পেরে অস্থির ছিলেন বাবা মা।

কিশোরীর বাবা স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পান হাজি নসু মালুম মসজিদের মুয়াজ্জিন মো. আশিকুল ইসলাম ঝাড়-ফুকের কাজ করেন।

খবর পেয়ে কিশোরীর বাবা বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মুয়াজ্জিনকে বাসায় ডেকে নেন। এরপর জিন তাড়ানোর নামে বাসার একটি কক্ষ থেকে বাবা-মাসহ সবাইকে বের করে শ্লীলতাহানি করেন। এরপর ওই কিশোরী বিষয়টি তার বাবা-মাকে জানালে তারা জাতীয় জরুরি সেবায় কল করেন।

ওসি খাইরুল ইসলাম বলেন, ৯৯৯ থেকে খবর পেয়ে পূর্ব মাদারবাড়ি এলাকা থেকে মুয়াজ্জিন আশিকুলকে গ্রেফতার করা হয়। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে তাকে আদালতে পাঠানো হবে বলে জানান ওসি।

রাজশাহীর সময়/এ