২৫ জুন ২০২৪, মঙ্গলবার, ০৫:০৯:৩৭ পূর্বাহ্ন


পরকীয়া প্রেমিক যুগলকে খুনের আমৃত্যু কারাদন্ডপ্রাপ্ত আসামী খলিল গ্রেফতার
স্টাফ রিপোর্টার :
  • আপডেট করা হয়েছে : ০৩-১০-২০২৩
পরকীয়া প্রেমিক যুগলকে খুনের আমৃত্যু কারাদন্ডপ্রাপ্ত আসামী খলিল গ্রেফতার পরকীয়া প্রেমিক যুগলকে খুনের আমৃত্যু কারাদন্ডপ্রাপ্ত আসামী খলিল গ্রেফতার


লক্ষীপুরের রামগতি থানার ডাবল মার্ডার মামলায় আমৃত্যু কারাদন্ডপ্রাপ্ত প্রধান আসামী ইব্রাহিম খলিলকে (৪৬)’কে গ্রফতার করেছে র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম।

সোমবার (২ অক্টোবর) চট্টগ্রাম জেলার ফটিকছড়ি থানাধীন তকিরহাট এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। 

গ্রেফতার আসামি ইব্রাহিম খলিল, সে লক্ষীপুর জেলার রামগতি থানার চরলক্ষী এলাকার আবুল কাশেমের ছেলে। 

মঙ্গলবার র‌্যাব-৭, চট্টগ্রামের পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়।

র‌্যাব জানায়, আসামী ইব্রাহিম খলিল ও বেলার মাঝির ছেলে ইউসুফ ফেনী’র একটি ইটভাটায় শ্রমিক হিসেবে কাজ করতেন। কাজের সুবাধে বিভিন্ন প্রয়োজনে ইউসুফ প্রায়শই ইব্রাহিমের বাড়িতে যাতায়ত করতো। যাতায়তের এক পর্যায়ে ইব্রাহিমের স্ত্রী রিনা বেগমের সাথে ইউসুফের অবৈধ সর্ম্পক গড়ে উঠে। গত ২০১৭ সালে মে মাসের শেষের দিকে ইউসুফ ইটের ভাটার কাজ ছেড়ে দিয়ে এলাকায় এসে দিন মজুর হিসেবে কাজ করতে থাকে। একই সালের গত ৩ জুন ইব্রাহিম খলিল ফেনী থেকে বাড়িতে এসে তার স্ত্রী রিনা বেগম ও ইউসুফকে আপত্তিকর অবস্থায় দেখে উত্তেজিত হয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে ইব্রাহিম ঘরে থাকা ধারালো ছুরি দিয়ে দু’জনকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। পরবর্তীতে স্থানীয় লোকজন পরকীয়া প্রেমিক যুগলকে ঘটনাস্থল হতে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেওয়ার পথে ইউসুফ এবং স্ত্রী রিনা বেগম চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত (৬ জুন ২০১৭) নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে মৃত্যবরণ করেন।

ওই ঘটনায় নিহত ইউসুফের স্ত্রী বাদী হয়ে লক্ষীপুর জেলার রামগতি থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। যার মামলা নং-২৭/২০১৮ (ফৌজদারী কার্যবিধির ২৪৫ ও ২৫৮ ধারা)। মামলা রুজু হওয়ার পর আসামি ইব্রাহিক খলিল আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর নিকট হতে গ্রেফতার এড়াতে আতœগোগনে চলে যায়। পরবর্তীতে পুলিশ প্রতিবদেন এবং সাক্ষিদের সাক্ষ্য প্রদানের ভিত্তিতে বিজ্ঞ আদালত দীর্ঘ বিচার প্রক্রিয়া শেষে আসামীর অনুপস্থিতিতে আমৃত্যু সশ্রম কারাদন্ড প্রদান করে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।

এরই প্রেক্ষিতে র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম বর্ণিত আমৃত্যু সশ্রম কারাদন্ডের সাজাপ্রাপ্ত আসামী ইব্রাহিম খলিলকে গ্রেফতারের লক্ষ্যে গোয়েন্দা কার্যক্রম আরম্ভ করে। একপর্যায়ে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে, হত্যা মামলার আমৃত্যু সশ্রম কারাদন্ড সাজাপ্রাপ্ত আসামী চট্টগ্রাম জেলার ফটিকছড়ি থানাধীন তকিরহাট এলাকায় অবস্থান করছে। এমন তথ্যের ভিত্তিতে তথ্য প্রযুুক্তির সহায়তায় সোমবার র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম এবং র‌্যাব-১১, নারায়ণগঞ্জের যৌথ অভিযানিক দল বর্ণিত এলাকায় অভিযান চালিয়ে আসামি ইব্রাহিম খলিলকে গ্রেফতার করে।  

জিজ্ঞাসাবাদে সে স্বীকার করে, তার স্ত্রী ও স্ত্রীর পরকীয়া প্রেমিককে খুনের মামলায় আমৃত্যু সশ্রম কারাদন্ড এবং ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে অতিরিক্ত ১ বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামী।

গ্রেফতারকৃত আসামী র বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ শেষে সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।