১৪ জুন ২০২৪, শুক্রবার, ০৩:১১:২৪ অপরাহ্ন


রাসিক নির্বাচনে মনোনয়নপত্র যাচাইয়ে বাদ পড়েছেন ৭ প্রার্থী
নিজস্ব প্রতিবেদক :
  • আপডেট করা হয়েছে : ২৫-০৫-২০২৩
রাসিক নির্বাচনে মনোনয়নপত্র যাচাইয়ে বাদ পড়েছেন ৭ প্রার্থী রাসিক নির্বাচনে মনোনয়নপত্র যাচাইয়ে বাদ পড়েছেন ৭ প্রার্থী


রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন (রাসিক) নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে মনোনয়নপত্র যাচাইয়ে বাদ পড়েছেন সাত প্রার্থী। এর মধ্যে ৩০ নম্বর ওয়ার্ডে তিনজন, ১৩, ১৭, ২২ ও ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের একজন করে। ফলে রাসিক নির্বাচনে মনোনয়নপত্র উত্তোলনকারী ১২৪ জনের মধ্যে ১১৭ জন প্রার্থী নির্বাচনের মাঠে একে অপরের সঙ্গে ভোট যুদ্ধে লড়বে।

বৃহস্পতিবার (২৫ মে) বিকেল সাড়ে ৫টায় রাজশাহী আঞ্চলিক নির্বাচন অফিসে রাসিকের ৩০টি ওয়ার্ডের মেয়র, সাধারণ কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদের প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ের দিন ছিল। এদিন মেয়র পদে চারজন ছাড়াও সাধারণ কাউন্সিলর ১১৭ জন ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৪৬ জনের মনোয়নপত্র বৈধতা পেয়েছে নির্বাচন কমিশনে।

রাজশাহী অঞ্চলিক নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, রাজশাহী সিটি করপোরেশনের ১৭ নম্বর ওয়ার্ডে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন চারজন। মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ে বাদ পড়েছেন আইয়ুব আলী। এই ওয়ার্ডে নির্বাচনের মাঠে থাকছেন শাহাদাত আলী শাহ্, মনিরুজ্জামান ও শামিম রায়হান। এছাড়া ২২ নম্বর ওয়ার্ডে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ে বাদ পড়েছেন সাইফুল আজীজ। নির্বাচন মাঠে থাকছেন মির্জা পারভেজ রিপন ও আব্দুল হামিদ সরকার। ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে দুইজনের মধ্যে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ে বাদ পড়েছেন মাসুদ রানা। ফলে এই ওয়ার্ডে আব্দুল মমিনই একমাত্র প্রার্থী থাকছেন।

অপরদিকে, ২৬ নম্বর ওয়ার্ডে সাতজন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ে বাদ পড়েছেন আখতারুজ্জামান। এছাড়া নির্বাচনের মাঠে থাকছেন আরও ছয়জন। তারা হলেন, আখতার আহম্মেদ, মখলেসুর রহমান খলিল, মহিউদ্দীন বাবু, মাসুদ রানা, রবিউল ইসলাম ও সারোয়ার জাহান। এছাড়া ৩০ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন ছয়জন। এর মধ্যে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ে বাদ পড়েছেন মো. আলাউদ্দিন, নুরুল ইসলাম ও ফয়সাল আহমেদ রাতুল। এই ওয়ার্ডে নির্বাচনের মাঠে থাকছেন, আব্দুস সামাদ, শহিদুল ইসলাম পিন্টু ও সাইদুর রহমান।

রাজশাহী আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা দেলোয়ার হোসেন জানান, রাসিক নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে মনোনয়নপত্র যাচাই বাছাইয়ে বাদ পড়েছেন সাত প্রার্থী। এছাড়া মেয়র ও সংরক্ষিত আসনে মনোনয়নপত্র যাচাই বাছাইয়ে কেউ বাদ পড়েনি। মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের বিরুদ্ধে আপিল করা যাবে ২৬ থেকে ২৮ মে এবং আপিল নিষ্পত্তি হবে ২৯ থেকে ৩১ মে। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় আগামী ১ জুন। ২ জুন প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হবে। আর আগামী ২১ জুন ইভিএমে রাসিক নির্বাচন হবে।