০৫ অক্টোবর ২০২২, বুধবার, ০৬:০৫:৪৩ পূর্বাহ্ন


ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে রামেক হাসপাতালে যুবকের মৃত্যু
নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট করা হয়েছে : ২১-০৯-২০২২
ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে রামেক হাসপাতালে যুবকের মৃত্যু ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে রামেক হাসপাতালে যুবকের মৃত্যু


রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে রাকিবুল ইসলাম (২২) নামে এক যুবক মারা গেছেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) বিকেলে রামেক হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) তিনি মারা যান।

রাকিবুল ইসলাম পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার বাসিন্দা। মাসখানেক আগে ঈশ্বরদীর রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রকল্পের কাজ শুরু করেন। ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে রোববার (১৮ সেপ্টেম্বর) রামেক হাসপাতালে আসেন রাকিবুল ইসলাম।

রামেক হাসপাতালের আইসিইউ ইউনিট প্রধান ডা. আবু হেনা মোস্তফা কামাল এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, তীব্র জ্বর, মাথা ও পেট ব্যথা নিয়ে প্রথমে উপজেলার হাসপাতালে ভর্তির হয়েছিলেন রাকিবুল ইসলাম। সেখান থেকে রোববার তাকে রামেক হাসপাতালে পাঠানো হয়।

পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর তার কিডনির কার্যক্ষমতা স্বাভাবিকের চেয়ে ৪ গুণ বেশি খারাপ পাওয়া যায়। এছাড়া ১০৬ ডিগ্রি পর্যন্ত  জ্বর ছিল তার। আইসিইউতে নেওয়া হলেও শেষ পযর্ন্ত তাকে বাঁচানো যায়নি।

প্রায় দুই বছর পর রামেক হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু হলো। এর আগে ২০১৯ সালের ১২ আগস্ট রামেক হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান আব্দুল মালেক (১৯) নামে এক যুবক।

পেশায় নির্মাণকর্মী আব্দুল মালেক চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর এলাকার বাসিন্দা। তিনি ঢাকায় কাজ করতেন। সেখানে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে বাড়ি ফেরেন। এর একদিন পরই মারা যান ওই যুবক।

এদিকে বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) সকালে রামেক হাসপাতালের পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী  জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় রামেকে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে একজনের প্রাণহানি ঘটেছে। তিনি হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি ছিলেন। এছাড়া ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে রামেক হাসপাতালে বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১৮ জন রোগী। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন ৭ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়েছেন। একই সময়ে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ৬ জন। 

জানা যায়, গত ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে এখন পর্যন্ত মোট ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়েছেন ৩৫ জন। এদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরেছেন ১৬ জন। আর মারা গেলেন একজন। 

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, আক্রান্তরা বেশির ভাগ পাবনা জেলার বাসিন্দা। তারা সবাই সম্প্রতি ঢাকা ঘুরে এসেছেন। তবে রাজশাহী মহানগরের বাসিন্দাদের এখন পর্যন্ত কেউ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হননি।