০৫ অক্টোবর ২০২২, বুধবার, ০৫:৪৬:৪৭ পূর্বাহ্ন


‘এক মাসে ৯৮ ধর্ষণ, ২১ পাচার’
অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট করা হয়েছে : ৩১-০৮-২০২২
‘এক মাসে ৯৮ ধর্ষণ, ২১ পাচার’ ফাইল ফটো


বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ জানিয়েছে, গত এক মাসে ৬২ জন কন্যাশিশুসহ ৯৮ জন ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। পাশাপাশি আগস্ট মাসে মোট ৩৬৬ জন নারী ও কন্যাশিশু নির্যাতনের শিকার হয়েছেন।

বুধবার (৩১ আগস্ট) বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের কেন্দ্রীয় লিগ্যাল এইড উপ-পরিষদে সংরক্ষিত ১৩টি দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের ভিত্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে মহিলা পরিষদ আরও জানায়, ধর্ষণের শিকার হওয়াদের মধ্যে ১৩ জন কন্যাশিশু ও ৯ জন নারী সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। ধর্ষণের পর হত্যার করা হয়েছে ২ কন্যাশিশু ও ২ নারীকে।

সংস্থাটির প্রতিবেদনে বলা হয়, এই সময়ের মধ্যে ৮ জন কন্যাশিশুসহ ১৩ জনকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে। যৌন নিপীড়নের শিকার হয়েছেন ২২ জন যার ২১ জনই কন্যাশিশু। এছাড়া ১৯ জন উতক্ত্যের শিকার হয়েছে যার মধ্যে একজন উত্ত্যক্ত হওয়ার কারণে আত্মহত্যা করেছেন।

এছাড়া একই সময়ে ২১টি নারী ও কন্যাশিশু পাচারের ঘটনা ঘটেছে। এরমধ্যে ৩ জন কন্যাশিশু। এসিডদগ্ধের শিকার হয়েছেন ২ জন। এরমধ্যে একজন কন্যাশিশু।

পাশাপাশি যৌতুকের কারণে ১৫ জন নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। পারিবারিক সহিংসতা শিকার হয়েছেন ৭ জন, পাঁচ কন্যাশিশুসহ ৪০ জনকে হত্যা করা হয়েছে। ২৯ জনের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে এবং আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে ৩০টি। বাল্যবিয়ের ঘটনা ঘটেছে ৫টি।