০৫ অক্টোবর ২০২২, বুধবার, ০৪:৪৮:০৩ পূর্বাহ্ন


আজও সিনেমাপ্রেমীদের কৌতূহল অমিতাভ-রেখাকে নিয়ে
তামান্না হাবিব নিশু:
  • আপডেট করা হয়েছে : ১৪-০৮-২০২২
আজও সিনেমাপ্রেমীদের কৌতূহল  অমিতাভ-রেখাকে নিয়ে আজও সিনেমাপ্রেমীদের কৌতূহল অমিতাভ-রেখাকে নিয়ে


অমিতাভ বচ্চন আর রেখাকে নিয়ে সিনেমাপ্রেমীদের মধ্যে যে কৌতূহল তৈরি হয়েছে, তা কখনই দূর হওয়ার নয় ৷ দুই সুপারস্টার একসঙ্গে কাজ করেছেন, উপহার দিয়েছেন বহু ব্লক বাস্টার হিট ছবি ৷ তাঁদের মধ্যে প্রেমের গুঞ্জন এখন চর্চিত বলিউডে ৷ তবে তা নিয়ে অমিতাভ বা রেখা, কেউ কখনও প্রকাশ্যে কথা বলেননি।

কোনও অনুষ্ঠানে অমিতাভ ও রেখা উপস্থিত থাকলে সবার নজর থাকে তাদের দিকেই ৷ এই সুপারহিট জুটিকে শেষবার একসঙ্গে দেখা গিয়েছিল যশ চোপড়া পরিচালিত ছবি 'সিলসিলা'-তে। যশ চোপড়া পরিচালিত এই ছবিটি ১৪ আগস্ট ১৯৮১ সালে মুক্তি পায়। রেখা, জয়া বচ্চন, সঞ্জীব কুমার এবং শশী কাপুরের মতো কিংবদন্তি তারকাদের নিয়ে তৈরি হয়েছিল 'সিলসিলা'৷ ৪১ বছরে পা রাখল সিলসিলা ছবি এবং সেই সঙ্গে ৪১ পর্দায় অমিতাভ-রেখার দূরত্বের সাক্ষী রয়েছেন 

'সিলসিলা' ছবিটি মুক্তির ৪১ বছর পেরিয়ে গেলেও ছবির গল্প ও গান এখনও সমান জনপ্রিয়। বলিউডের সেরা প্রেমের ছবিগুলির মধ্যে অন্যতম সিলসিলা৷ অমিতাভ বচ্চন ও রেখা জুটি যখনই পর্দায় এসেছে তখনই দর্শকরা প্রচুর ভালবাসায় ভরিয়ে দিয়েছেন। তবে সিলসিলা ছবিতে তাঁদের শেষ দেখা গিয়েছে ৷ সিলসিলা ছবিতে যে গল্প বলেছিলেন যশ চোপড়া, তা অমিতাভ-জয়া-রেখার বাস্তব গল্পই নাকি তুলে ধরা হয়েছিল ৷ বা ছবিতে এই তিন তারকার বাস্তবের কাহিনি ফুটে উঠেছিল ৷ এমনও শোনা গিয়েছিল ৷

তবে কী হয়েছিল এদের মধ্যে, কেন এই হিট জুটি আর কখনও মুখোমুখি পর্যন্ত হল না, তার উত্তর পাওয়া যায়নি৷ আজও অমিতাভ বচ্চন এবং রেখাকে নিয়ে অনেক গল্প শোনা যায় মুম্বই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির আনাচে কানাচে।

রেখা, জয়া বচ্চন ও অমিতাভকে নিয়ে ছবি বানানো পরিচালকের পক্ষেও সহজ ছিল না। 'সিলসিলা' ছবিটি তার গল্পের চেয়ে অভিনেতা-অভিনেত্রীর মুখ্য ভূমিকার কারণে আলোচনায় ছিল এবং আজও তাই হিট। যশ চোপড়া তাঁর ছবিতে এই জুটির পুনরাবৃত্তি করার সিদ্ধান্ত নেন এবং অন্য অভিনেত্রী স্মিতা পাতিলকে চুক্তিবদ্ধ করেন।

কিন্তু অমিতাভ যশ চোপড়াকে বলেছিলেন যে পারভিন ও স্মিতার পরিবর্তে রেখা ও জয়াকে কাস্ট করলে ভাল হবে৷ যশও অমিতাভের কথায় রাজি হন। শোনা যায় যে অমিতাভ বচ্চন যখন এই পরামর্শ দেন তখন ছবির কাজ শুরু হয়েছে৷ ফলে মাঝখানে নেওয়া এই সিদ্ধান্তে পারভিন ও স্মিতা দু’জনেই রেগে যান।

যশ চোপড়া বড় ঝুঁকি নিয়েছিলেন৷ জয়া বচ্চন এবং রেখাকে কাস্ট করেছিলেন৷ তবে দু’জনের কাছ থেকে প্রতিশ্রুতিও নিয়েছিলেন যে ছবির শুটিং চলাকালীন কোনও সমস্যা হবে না। তবু জয়া ও রেখাকে নিয়ে ছবির শুটিং করা যশ চোপড়ার পক্ষে সহজ ছিল না। শোনা যায় যে, অমিতাভকে নিয়ে দু’জনের মধ্যে যে টানাপোড়েন তা ধরা পড়েছিল সেটে। যশ চোপড়া সিলসিলা তৈরির সময় নাকি অনেক চাপের মধ্যে থাকতেন৷

একই রকমভাবে অমিতাভ বচ্চনের জন্য এটি কম কঠিন ছিল না। যখন এই ছবির শুটিং চলছিল, তখন অমিতাভ-রেখার সম্পর্ক নিয়ে অনেক গসিপ হয়েছিল৷ আবার সে সময় জয়ার সঙ্গে সংসার করছেন অমিতাভ। সৌভাগ্যক্রমে, সে সময় আজকের যুগের মতো সোশ্যাল মিডিয়া ছিল না। থাকলে হয়ত রসায়ন এবং পরিণতি অন্য কিছু হতে পারত৷ এমনই মত ওয়াকিবহাল মহলের৷

'সিলসিলা' যখন মুক্তি পাওয়ার পরপরই বক্স অফিসে বিশেষ সাফল্য আসেনি৷ কিন্তু পরে এটি এতটাই হিট হয় যে ছবিটি এখনও অমিতাভ-রেখার একটি স্মরণীয় ছবি হিসাবে বিবেচিত হয়। এই ছবির পরই অমিতাভ ও রেখা কখনই রুপালি পর্দায় একসঙ্গে আসেননি।

বলিউডের ক্লাসিক ছবির মধ্যে 'দেখা এক খোয়াব', 'সিলসিলা', 'ইয়ে কাহান আ গে হাম' বা 'রং বারসে ভেগে চুনার ওয়ালি' গানে রেখা ও অমিতাভের মধ্যে প্রেমের দৃশ্য স্মরণীয় হয়ে থাকবে। অনস্ক্রিন তাঁদের মধ্যে রসায়ন অসামান্য। সেই আমলে তাদের ঘনিষ্ঠতার খবর প্রকাশিত হলে তুমুল আলোচনাও হয়।

জানা যায় যে অমিতাভ এবং জয়ার বিবাহিত জীবনে অনেক অশান্তি হয়েছিল এই ছবির জন্য এবং এরপরই অশান্তির অবসান করে অমিতাভ-রেখা পুরোপুরি নিজেদের মধ্যে দূরত্ব তৈরি করে ফেলেন৷ আর কোনও দিনই ভক্তরা এই দুই তারকাকে একসঙ্গে দেখতে পাননি৷