০৫ অক্টোবর ২০২২, বুধবার, ০৬:১৯:১৭ পূর্বাহ্ন


১৫ বছরের প্রেমিকের সঙ্গে ১৯ বছরের প্রেমিকার বিয়ে!
নিজস্ব প্রতিবেদক :
  • আপডেট করা হয়েছে : ১৪-০৮-২০২২
১৫ বছরের প্রেমিকের সঙ্গে ১৯ বছরের প্রেমিকার বিয়ে! ১৫ বছরের প্রেমিকের সঙ্গে ১৯ বছরের প্রেমিকার বিয়ে!


রাজশাহীর পুঠিয়ায় ১৫ বছরের প্রেমিকের সঙ্গে ১৯ বছরের প্রেমিকার বিয়ে হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

তরুণী (১৯) পুঠিয়া উপজেলার বানেশ্বর ইউনিয়নের ভাড়রা গ্রামের কবাসিন্দা। আর কিশোর নগরীর উপকন্ঠ বেলপুকুর থানাধীন (আরএমপি) চক ধাদাশ গ্রামের লতিফুরের ছেলে সিজানুর রহমান (১৫)।

শুক্রবার (১২ আগস্ট) মধ্যরাতের পর উপজেলার বেলপুকুর ইউনিয়নে তাদের বিয়ে পড়ানো হয়েছে। উপজেলার পাশাপাশি দুই ইউনিয়ন বানেশ্বর ও পুঠিয়ায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, তরুণীর খালার বাড়ি চক ধাদাশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে। সেখানে বেড়াতে এলে তরুণীকে দেখে পছন্দ হয় কিশোর সিজান। এরপর শুরু হয় প্রেম কাহিনি। মোবাইল নম্বর জোগাড় করে তরুণীকে ফোন দেয় সিজান। কথা চলতে চলতে তাদের প্রেম গড়ায় শারীরিক সম্পর্কে।

তরুণী জানায়, তাদের সাড়ে তিন বছরের সম্পর্ক। বিয়ে করবে বলে অনেকবার শারীরিক সম্পর্কে জড়ায় সিজান পরে বিয়ের জন্য চাপ দিলে কৌশলে সটকে পড়ার চেষ্টা করে সিজান। তরুণী উপায় না দেখে শুক্রবার (১২ সেপ্টম্বর) রাত ৮টার দিকে ছেলে সিজানের বাড়িতে গিয়ে অবস্থান নেন।

খবর পেয়ে বেলপুকুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে কিছু ঘণ্টাখানেক অবস্থান নিয়ে চলে যায়। রাত আড়াইটার পর স্থানীয়ভাবে সালিশ বসে দুইপক্ষের ৫ জন করে মোট ১০ জন জুড়িবোর্ডে যান।

ফিরে এসে জুড়ি বোর্ডে সিদ্ধান্ত জানান, বেলপুকুর ইউনিয়ন পরিষদের দুই নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য লতিফুল৷

তিনি বলেন, এক লাখ ২০ হাজার টাকা দেনমোহরের মাধ্যমে এই বিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। বিয়ের চারজন সাক্ষী ও স্থানীয়দের সইয়ের মাধ্যমে বিয়ের কাজ শেষ সম্পন্ন হয়।

পুঠিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুজ্জামান বলেন, প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অবস্থানের কথা জানতে পেরে থানা থেকে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। দুই পক্ষকে থানায় ডাকাও হয়েছিল। পরে কেউই আর থানায় আসেনি। তবে বাল্য বিবাহের ঘটনা ঘটলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।