১৫ অগাস্ট ২০২২, সোমবার, ০৭:৩৫:১৮ পূর্বাহ্ন


ফের সক্রিয় খড় পার্টি
অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট করা হয়েছে : ৩১-০৭-২০২২
ফের সক্রিয় খড় পার্টি ফাইল ফটো


আগন্তুক হয়ে এগিয়ে আসেন তারা। সহায়তা চেয়ে শুরু করেন আলাপ। কথার মায়াজালে আটকে ফেলা হয় টার্গেট ব্যক্তিকে। পরে টার্গেট ব্যক্তি নিজেই তার সঙ্গে থাকা স্বর্ণালংকার, মূল্যবানসামগ্রী তুলে দেন আগন্তুকদের হাতে। নারীরাই তাদের মূল লক্ষ্য। বছরখানেক আগে পুলিশের নজরে আসা খড় পার্টি আবারও মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে রাজধানীতে। প্রকাশ্যে তারা কোনোরকম ভয়ভীতি না দেখিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছে মূল্যবানসামগ্রী।

১৬ জুলাই, সন্ধ্যা ৬টা ৩৬ মিনিট। রাজধানীর কাঠালবাগানের ফ্রি স্কুল স্ট্রিট। সন্দেহজনক গতিবিধি এই দুজনের। বাসাটির সামনে এসে সঙ্গে সঙ্গেই চলে যেতে দেখা যায় বোরকাপড়া নারীকে। কিছুক্ষণ পর চলে যান পুরুষটিও।

৫ মিনিট পর আবারও দেখা যায় ওই দুজনকে। তাদের সঙ্গে এবার দেখা যায় আরেক নারীকে। দ্বিতীয় ওই নারীর সঙ্গে কথা হয় সময় সংবাদের। তার সঙ্গে ঘটে যাওয়া সেই দিনের বিস্তারিত তুলে ধরেন সময় সংবাদকে। তিনি জানান, মাত্র ৫ মিনিটের পরিচয়ে কীভাবে নিজেই তার সঙ্গে থাকা স্বর্ণালংকার, নগদ টাকা ও মোবাইল ফোন তুলে দিয়েছিলেন তাদের হাতে।

তিনি বলেন, এক নারী এসে আমার গলায় হাত দিয়ে ধরে। এর মধ্যেই একটা পুরুষ লোক জিজ্ঞেস করে, আপনা গায়ে কি গয়না আছে? আমি বললাম, গলায় চেইন, কানে দুল আর হাতে আংটি আছে। তখন সে বলে যে এগুলো খুলে একটা ব্যাগের মধ্যে রেখে গিট দেন।  

এমন নাটকীয় ঘটনা রাজধানীতে প্রথম নয়। আগেও অনেক নারীই এই চক্রের খপ্পরে পড়ে সঙ্গে থাকা মূল্যবানসামগ্রী তুলে দিয়েছেন তাদের কাছে। সাধারণত পথেঘাটে বিপদগ্রস্ত সেজে কোনো নারীর কাছে সহায়তা চেয়ে আলাপ শুরু করেন এই চক্রের সদস্যরা। নিখুঁত অভিনয় আর কথার মায়াজালে ফেলে নারীদের ফাঁদে ফেলেন তারা।

পুলিশ বলছে, চক্রটিকে শনাক্ত করে রহস্য উদ্‌ঘাটনের চেষ্টা চলছে।

ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের উপপুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ ফারুক হোসেন বলেন, স্বর্ণালংকার, মোবাইল ফোন বা অন্যান্য মূল্যবানসামগ্রী ছিনিয়ে নেয়া হচ্ছে না। কিন্তু আপসে ভিকটিম সেগুলো দিয়ে দিচ্ছে। কীভাবে সম্মোহিত করা হচ্ছে, সেই রহস্য উদ্‌ঘাটনে চেষ্টা চলছে। বিষয়টি ডিবির নজরে আসার পর থেকে তারা ইতোমধ্যেই কাজ শুরু করে দিয়েছে।  

গত বছরের আগস্টে হাতিরঝিল থানা পুলিশ গ্রেফতার করে এই পার্টির তিন সদস্যকে। প্রথমবারের মতো সামনে আসে খড় পার্টির নাম। জানা যায়, চক্রটি দুই বছরে ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় দুই শতাধিক নারীকে ফাঁদে ফেলে স্বর্ণালংকার, মোবাইল ফোন ও নগদ টাকা কেড়ে নিয়েছে।

তাদের জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশ আরও জানতে পারে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার চনপাড়া বস্তি এই পার্টির মূল আস্তানা। সেখানে তাদের ৪০টি দল আছে। প্রতিটি দলের সদস্য তিনজন। 

রাজশাহীর সময়/এম