২৩ মে ২০২২, সোমবার, ১১:০৪:৪৮ পূর্বাহ্ন


বাগমারায় মাদ্রাসা ছাত্রকে ধর্ষণের অভিযোগে শিক্ষক গ্রেফতার
বাগমারা প্রতিনিধি
  • আপডেট করা হয়েছে : ২১-০১-২০২২
বাগমারায় মাদ্রাসা ছাত্রকে ধর্ষণের অভিযোগে শিক্ষক গ্রেফতার ফাইল ফটো


রাজশাহীর বাগমারায় নয় বছর বয়সের ছাত্রকে ধর্ষণের অভিযোগে এক মাদ্রাসা শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল শুক্রবার সকালে ওই শিক্ষককে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে শাকিল আহমেদ (২০) নামের ওই শিক্ষককে গ্রেফতার করে পুলিশ।

বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তাক আহম্মেদ জানান, উপজেলার বাসুপাড়া ইউনিয়নের একটি হাফেজিয়া মাদ্রাসায় দীর্ঘদিন ধরে শিশু শিক্ষার্থীদের কোরআন শিক্ষার কার্যক্রম চলছে। আশপাশের শিশু শিক্ষার্থীরা সেখানে থাকত। মাদ্রাসার কর্তৃপক্ষ সেখানেই থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা করেন। এ জন্য দু’জন শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হয়।

ওসি আরও জানান, গত বুধবার মাদ্রাসার এক ছাত্রকে শিক্ষক শাকিল নিজ কক্ষে ডেকে নেন। এ সময় তিনি দায়িত্ব পালন করছিলেন। পরে ছাত্রকে তার কক্ষেই ধর্ষণ করেন শাকিল। ঘটনাটি কাউকে না বলার জন্য ছাত্রকে হুমকিও দেন তিনি। ধর্ষণের শিকার ছাত্র কৌশলে মাদ্রাসা থেকে বাড়িতে চলে যায়। পরে সে বাড়িতে গিয়ে অভিভাবকদের কাছে ঘটনাটি প্রকাশ করে এবং মাদ্রাসায় আর যাবে না বলে অভিভাবকদের জানায়।

ওসি বলেন, ওই ছাত্রের পরিবারের মাধ্যমে বিষয়টি জানার পর বাগমারা থানার পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করে এবং ধর্ষণের শিকার শিশুর সঙ্গে কথা বলে। এ সময় শিশুটি ধর্ষণের বর্ণনা দিলে বৃহস্পতিবার রাতেই পুলিশ মাদ্রাসায় অভিযান চালায়। এ সময় মাদ্রাসা থেকে অভিযুক্ত শিক্ষক শাকিলকে পুলিশ আটক করে। রাতে শিশুর বাবা থানায় মামলা করেন। ওই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে শুক্রবার সকালে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। আর শিশুকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ওসি মোস্তাক আহম্মেদ বলেন, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতার শিক্ষক নিজের অপরাধের কথা স্বীকার করেছেন। এ ঘটনায় তিনি অনুতপ্ত বলে পুলিশকে জানিয়েছেন।

রাজশাহীর সময় /এএইচ