২৩ মে ২০২২, সোমবার, ১০:২৬:৩১ পূর্বাহ্ন


ধরা পড়ল ক্যামেরায় , পিছন থেকে গুলি করে নিরীহ মানুষকে মারছে রুশ সেনা
আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
  • আপডেট করা হয়েছে : ১৪-০৫-২০২২
ধরা পড়ল ক্যামেরায় , পিছন থেকে গুলি করে নিরীহ মানুষকে মারছে রুশ সেনা ধরা পড়ল ক্যামেরায় , পিছন থেকে গুলি করে নিরীহ মানুষকে মারছে রুশ সেনা


ইউক্রেনের হাজার হাজার মানুষকে ‘জিজ্ঞাসাবাদের জন্য’ আটক করেছে রুশ সেনা। ইতিমধ্যে সেদেশ ছেড়ে পালিয়েছেন ৬০ লক্ষের বেশি মানুষ। বৃহস্পতিবার রাশিয়ার প্রতিবেশী ফিনল্যান্ডের নেতারা বলেছেন, যে দেশগুলি এখনও নিরপেক্ষ রয়েছে, তাদের অবিলম্বে ন্যাটোয় যোগ দেওয়া উচিত। ফিনল্যান্ডকে পালটা হুমকি দিয়েছে ক্রেমলিন।

ইউক্রেনে যুদ্ধ চলছে ১১ সপ্তাহ ধরে। ইতিমধ্যে নিরস্ত্র মানুষকে হত্যা, অত্যাচার ও ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে রুশ সেনার বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার সিএনএন এবং বিবিসি-র তরফে একটি ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করেছে। তাতে দেখা যায়, রাশিয়ান সেনা ইউক্রেনের দুই নিরীহ মানুষকে পিছন থেকে গুলি করছে। তার আগে সৈনিকরা দু’জনকে তল্লাশি করেছিল। তাদের কাছে কিছু পাওয়া যায়নি। এরপরে সৈনিকরা তাঁদের চলে যেতে অনুমতি দেয়। তাঁরা যখন চলে যাচ্ছেন, অ্যাসল্ট রাইফেল থেকে তাঁদের দিকে গুলি চালানো হয়। সংবাদ মাধ্যমের দাবি, একজন ঘটনাস্থলে মারা যান। অপরজন মারা যান কিছুক্ষণ পরে।

সিএনএনের বক্তব্য, গত ১৬ মার্চ ওই দু’জনকে গুলি করে মারা হয়। এই হত্যাকাণ্ডকে যুদ্ধাপরাধ হিসাবে গণ্য করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে। ইউক্রেনের একটি গ্রামের মানুষ ফ্রান্সের সংবাদ সংস্থাকে জানিয়েছেন, সাধারণ মানুষের বাড়ি লক্ষ্য করে ট্যাঙ্ক থেকে গোলাবর্ষণ করেছে রুশ সেনা। তাতে তিনজন নিরীহ মানুষ মারা গিয়েছেন।

রাষ্ট্রপুঞ্জের রিফিউজি এজেন্সি জানিয়েছে, ইউক্রেন ছেড়ে যাঁরা পালিয়েছেন, তাঁদের বেশিরভাগ আশ্রয় নিয়েছেন প্রতিবেশী দেশ পোল্যান্ডে। উদ্বাস্তুদের ৯০ শতাংশ নারী ও শিশু। বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রপুঞ্জ অভিযোগ করেছে, রাশিয়া হাজার হাজার ইউক্রেনীয় নাগরিককে ‘জিজ্ঞাসাবাদের জন্য’ ধরে নিয়ে গিয়েছে। ইন্টারোগেশন ক্যাম্পে তাঁদের ওপরে অত্যাচার করা হচ্ছে।