২৩ মে ২০২২, সোমবার, ১২:০৬:০৬ অপরাহ্ন


মকবুলের মুক্তির দাবিতে প্রতিবাদ সভা করবে বিএনপি
অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট করা হয়েছে : ২৩-০৪-২০২২
মকবুলের মুক্তির দাবিতে প্রতিবাদ সভা করবে বিএনপি বিএনপ ‘র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ফাইল ফটো


রাজধানীর নিউমার্কেটে ব্যবসায়ী ও ঢাকা কলেজ শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় গ্রেপ্তার হওয়া বিএনপি নেতা মকবুল হােসেনের মুক্তি ও মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে আগামী ২৬ এপ্রিল ঢাকাসহ সকল মহানগরে প্রতিবাদ সভা করবে বিএনপি।

শনিবার (২৩ এপ্রিল) গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘নিউমার্কেটের সংঘর্ষ, পুলিশের ভূমিকা এবং পরবর্তীতে বিএনপি ও অঙ্গ-সংগঠনের নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তার ও মামলা দায়েরের ঘটনায় আবারও প্রমাণিত হল, আওয়ামী লীগ সরকার ভয় দেখিয়ে, নির্যাতন করে, হত্যা করে ক্ষমতা চিরস্থায়ী করতে চায়।’

গত শুক্রবার রাতে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত হয় বলে জানান তিনি।  নিউমার্কেটে সংঘর্ষের ঘটনায় প্রকৃত সত্য উদগটনের জন্য একটি ৩ সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে বলেও জানান বিএনপি মহাসচিব।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে যে সত্যটি উদঘটিত হয়েছে যে, হামলাকারীরা ছাত্রলীগের সন্ত্রাসী। ভিডিও ফুটেজ থেকে অন্তত তিন জনকে চিহ্নিত করা হয়েছে যারা ছাত্রলীগের সক্রিয় কর্মী। গণমাধ্যমের রিপাের্টে এটা স্পষ্ট যে প্রধানত চাঁদাবাজির কারণে এবং নিজেদের প্রভাব বিস্তারের জন্য ছাত্রলীগের বিভিন্ন গ্রুপের ভয়াবহ সন্ত্রাসীরা এই ঘটনার জন্য দায়ী।’ 

তিনি বলেন, ‘শুধু এই ঘটনাই নয় নিউমার্কেটসহ পাশ্ববর্তী এলাকা গুলাের দীর্ঘদিন ধরেই শাসক গােষ্ঠীর ছাত্র-ছায়ায় ব্যাপক চাঁদাবাজি ও সন্ত্রাসী কার্যকলাপ সংঘটিত হচ্ছে। ছাত্রলীগ, যুবলীগ পুলিশের সহায়তায় অপরাধ জগত গড়ে তুলছে।’

দ্রব্যমূলের ঊর্ধ্বগতিতে জনজীবনে যখন নাভিশ্বাস উঠেছে তখন জনগণের দৃষ্টি ভিন্ন দিকে প্রবাহিত করার জন্য সরকার ‘উদ্দেশ্যমূলকভাবে’ এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটিয়ে বিএনপিকে জড়াচ্ছে বলে অভিযোগ করেন মির্জা ফখরুল।

তিনি বলেন, ‘সরকার পূর্বের মতই মামলার বেড়াজালে বিএনপির নেতাকর্মীদের বন্দি করার চক্রান্ত করছে। মামলা, গ্রেপ্তার, গুম, খুন, হত্যা এই সরকারের প্রধান অস্ত্র যা দিয়ে বিএনপিকে রাজনীতি থেকে দূরে রাখার চেষ্টা করছে। বর্তমান অনির্বাচিত আওয়ামী লীগ সরকার গত এক যুগ যাবত অবৈধভাবে ক্ষমতায় থাকার জন্য রাষ্ট্রের সকল যন্ত্রকে ব্যবহার করে জনগণের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে।’

আওয়ামী লীগ ফ্যাসিবাদী রাষ্ট্রব্যবস্থা গড়ে তুলছে উল্লেখ করে বিএনপি মহাসচিব বলেন,  ‘জনগণের জীবনের কোনো নিরাপত্তা নেই, ব্যবসার কোনো পরিবেশ নেই। বিচারবিভাগকে দলীয়করণ করা হয়েছে। দুর্নীতিকে প্রাতিষ্ঠানিকীকরণ করা হয়েছে। মানবাধিকার চরমভাবে লঙ্ঘিত হচ্ছে। সংবিধানকে লঙ্ঘন করে একের পর এক নিবর্তনমূলক আইন প্রণয়ন করে একটা ফ্যাসিবাদী রাষ্ট্র ব্যবস্থা গড়ে তােলা হয়েছে।’

রাজশাহীর সময়/এএইচ