২৩ মে ২০২২, সোমবার, ১১:১১:৪৮ পূর্বাহ্ন


এবার এইচএসসিতে পাস ৯৫.২৬%
অনলাইন ডেস্ক:
  • আপডেট করা হয়েছে : ১৩-০২-২০২২
এবার এইচএসসিতে পাস ৯৫.২৬% এবার এইচএসসিতে পাস ৯৫.২৬%


সারাদেশে নয়টি সাধারণ, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে এ বছর উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট পরীক্ষায় (এইচএসসি) পাসের হার ৯৫ দশমিক ২৬ শতাংশ। এবার সর্বোচ্চ ফল বা জিপিএ-৫ অর্জন করা শিক্ষার্থীরা সংখ্যা ১ লাখ ৮৯ হাজার ১৬৯ জন।

রোববার সকালে ২০২১ সালের এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার এই ফল ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সকাল সাড়ে ১১টার দিকে গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি সংযুক্ত হয়ে তিনি ফল ঘোষণা করেন। ফল ঘোষণার আনুষ্ঠানিকতার মূল আয়োজনটি ছিল রাজধানীর সেগুনবাগিচার আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি নয়টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডে, মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানদের কাছ থেকে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল গ্রহণ করেন।

এ পর্যন্ত পাওয়া ফলাফলে জানা গেছে, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৯৬ দশমিক ২০ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৫৯ হাজার ২৯৯ জন শিক্ষার্থী।

রাজশাহী বোর্ডের পাসের হার ৯৭ দশমিক ২৯ শতাংশ; জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৩২ হাজার ৮০০ শিক্ষার্থী। যশোর বোর্ডের পাসের হার ৯৮ দশমিক ১১ শতাংশ; জিপিএ-৫ পেয়েছেন ২০ হাজার ৮৭৮ জন শিক্ষার্থী। দিনাজপুর বোর্ডের পাসের হার ৯২ দশমিক ৪৩ শতাংশ; জিপিএ-৫ পেয়েছেন ১৫ হাজার ৩৪৯ জন শিক্ষার্থী।

কুমিল্লা বোর্ডের পাসের হার ৯৭ দশমিক ৪৯ শতাংশ; জিপিএ-৫ পেয়েছেন ১৪ হাজার ১৫৩ জন শিক্ষার্থী। চট্টগ্রাম বোর্ডের পাসের হার ৮৯ দশমিক ৩৯ শতাংশ; জিপিএ-৫ পেয়েছেন ১৩ হাজার ৭২০ জন শিক্ষার্থী। সিলেট বোর্ডের পাসের হার ৯৪ দশমিক ৮০ শতাংশ; জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৪ হাজার ৭৩১ জন শিক্ষার্থী।

বরিশাল বোর্ডের পাসের হার ৯৫ দশমিক ৭৬ শতাংশ; জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৯ হাজার ৯৭১ জন শিক্ষার্থী। ময়মনসিংহ শিক্ষা বোর্ডের পাসের হার ৯৫ দশমিক ৭১ শতাংশ; জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৭ হাজার ৬৮৭ জন শিক্ষার্থী।

এ ছাড়া মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৯৫ দশমিক ৪৯ শতাংশ; জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৪ হাজার ৮৭২ জন শিক্ষার্থী। কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৯২ দশমিক ৮৫ শতাংশ; জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৫ হাজার ৭৭৫ জন শিক্ষার্থী।

ফলাফল ঘোষণার আগে শেখ হাসিনা করোনা সংক্রমণের মধ্যে ৪৪ দিনের মধ্যে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণার করায় শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও শিক্ষা বোর্ডের কর্মকর্তাদের ধন্যবাদ জানান।

গত ২ ডিসেম্বর শুরু হওয়া ২০২১ সালের উচ্চ মাধ্যমিক ও সমমান পরীক্ষায় পরীক্ষার্থী ছিল ১৪ লাখ ৩ হাজার ২৪৪ জন। এদের মধ্যে পরীক্ষায় অংশ নেন ১৩ লাখ ৭১ হাজার ৬৮১ জন।

মহামারি পরিস্থিতিতে এবার সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে গ্রুপভিত্তিক তিনটি নৈর্বচনিক বিষয়ে এইচএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষা না নেওয়ায় বাংলা, ইংরেজির মত আবশ্যিক বিষয়গুলোর মূল্যায়ন করা হয়েছে জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে।

যেভাবে জানা যাবে ফলাফল

রোববার বেলা ১২টা থেকে শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইটে এবং এসএমএসের মাধ্যমে ফলাফল জানা যাবে। এছাড়া পরীক্ষা কেন্দ্র ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকেও ফল সংগ্রহ করা যাবে।

পৃথক বিজ্ঞপ্তিতে শিক্ষা বোর্ডগুলো জানিয়েছে, বোর্ডগুলোর সমন্বিত ওয়েবসাইটে (www.educationboardresults.gov.bd) পরীক্ষার্থীর রোল ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর দিয়ে এইচএসসি এবং সমমানের পরীক্ষার ফল পাওয়া যাবে।

মোবাইল ফোনে এসএমএসের মাধ্যমে ফল জানতে HSC লিখে স্পেস দিয়ে শিক্ষা বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০২১ লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠাতে হবে। ফিরতি এসএমএসেই ফল পাওয়া যাবে।

আলিমের ফল পেতে ALIM লিখে স্পেস দিয়ে Mad লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০২১ লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠাতে হবে।

কারিগরি বোর্ডের ক্ষেত্রে HSC লিখে স্পেস দিয়ে Tec লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০২১ লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠালে ফিরতি এসএমএসে ফলাফল জানানো হবে।

এবার সব বোর্ড মিলিয়ে উচ্চ মাধ্যমিকে ১৩ লাখ ৯৯ হাজার ৬৯০ জন পরীক্ষার্থী ছিলেন। মহামারীর কারণে এবার সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে গ্রুপভিত্তিক তিনটি নৈবচনিক বিষয়ে ছয়টি পত্রে এইচএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষা নেওয়া না হলেও বাংলা, ইংরেজির মত আবশ্যিক বিষয়গুলোর মূল্যায়ন করা হবে জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে।

এইচএসসি ও সমমানের প্রায় ১৪ লাখ পরীক্ষার্থীর ফলাফলের অপেক্ষা শেষ হচ্ছে রোববার; তাতে প্রত্যাশিত ফল না আসলে তা আবার যাচাইয়ের আবেদন করতে এক সপ্তাহ সময় পাবেন তারা।

পৃথক বিজ্ঞপ্তিতে শিক্ষা বোর্ডগুলো জানিয়েছে, আগামী ১৪ থেকে ২০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা ফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন করতে পারবেন। ফলাফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন প্রক্রিয়া পরবর্তীতে শিক্ষাবোর্ডগুলোর ওয়েবসাইট ও রাষ্ট্রায়ত্ত্ব মোবাইল অপারেটর টেলিটকের ওয়েবসাইটে জানা যাবে।

রাজশাহীর সময় / এফ কে