ঢাকা মঙ্গলবার, মে ১৮, ২০২১
লজ্জায় স্তম্ভিত বিরাট কোহলি
  • Rajshahir Somoy Desk
  • ২০২০-১২-২০ ১২:০১:৩৭
ফাইল ফটো

ক্রীড়া ডেস্ক : মাত্র ৩৬ রানেই অলআউট বিশ্বসেরা ব্যাটিং লাইনআপ! এমন পারফরমেন্সের পর লজ্জায় মুখ ঢাকারই কথা ভারতীয় ক্রিকেট দলের। সেটাই হয়েছে ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলির। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে অ্যাডিলেড টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ৩৬ রানে গুটিয়ে আড়াই দিনেই দিবা-রাত্রির টেস্ট ৮ উইকেটে হারলো ভারত।

তাই ম্যাচ শেষে হতাশায় ডুব দিয়েছেন ভারত অধিনায়ক কোহলি। লজ্জায় স্তম্ভিত বিরাট বলেন, ‘এইভাবে হারের অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করা সম্ভব নয়। ৬০ রানের মতো লিড নিয়ে আমরা তৃতীয় দিনে ব্যাট করতে নেমেছিলাম। তখনই ধসটা নামল। দুই দিন ধরে কঠিন পরিশ্রম করে ম্যাচে নিজেদের ভাল জায়গায় নিয়ে যাওয়ার পর মাত্র একটা ঘণ্টা এত খারাপ গেল যে, সেখান থেকে পরিস্থিতি হাতের বাইরে চলে গেল। মাত্র এক ঘণ্টায় এমন জায়গায় নেমে গেলাম, যেখান থেকে জয় পাওয়া আসলে অসম্ভব।’

এর আগে ৬২ রানের লিড নিয়ে তৃতীয় দিনে খেলতে নেমেছিলো ভারত। দ্বিতীয় ইনিংসে দলের স্কোর ছিলো ১ উইকেটে ৯ রান। তৃতীয় দিন মাত্র দেড় ঘণ্টা সময় নিয়ে ভারতের ইনিংস গুটিয়ে দেন অস্ট্রেলিয়ার দুই পেসার জশ হ্যাজেলউড ও প্যাট কামিন্স।

দেড় ঘণ্টায় শেষ হওয়া এই ইনিংসের মতো ব্যাটিং আগে কখনও দেখেননি বলে জানান কোহলি। ভারত অধিনায়ক বলেন, ‘মনে হয় না, এর আগে আমরা কখনও এত খারাপ ব্যাট করেছি। আমাদের আরও সর্তক হওয়া জরুরি ছিলো। প্রথম ইনিংসে অস্ট্রেলিয়া যে জায়গায় বল ফেলেছিল, দ্বিতীয় ইনিংসেও একই জায়গায় বল করে গেল। সত্যি কথা বলতে- কয়েকটা ভালো বল হয়েছে ঠিকই, কিন্তু উইকেটে বোলারদের জন্য বড় কোনও সুবিধা ছিলো না। আমরা খুবই বাজে ব্যাটিং করেছি। আমরা ধরেই নিয়েছিলাম রান করা কঠিন। তাতেই অস্ট্রেলিয়ার বোলাররা আত্মবিশ্বাস পেয়ে যায়।’

টেস্ট ক্রিকেটে প্রায় অর্ধ শতাব্দী আগে ১৯৭৪ সালে ইংল্যান্ডের কাছে ৪২ রানে অলআউট হয়েছিল ভারত। আর ২০২০ সালে এসে বিরাট কোহলির ভারত অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ৯ উইকেট হারিয়েছে ৩৬ রানে। যদিও শেষ ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ শামি ব্যথা পেয়ে মাঠ ছাড়েন। ফলে অস্ট্রেলিয়ার ম্যাচ জয়ের লক্ষ্য দাঁড়ায় ৯০ রান।

এর আগে শুক্রবার ৯ রানে আউট হয়েছিলেন ভারতের ওপেনার আগারওয়াল। আজ শনিবার খেলতে নেমেই হুড়মুড় করে উইকেট পড়তে থাকে ভারতের। কেউই দুই অংকের কোঠা পার হতে পারেননি। এর মধ্যে পৃথ্বি শ’ ৪, বুমরাহ ২, পুজারা ০, বিরাট কোহলি ৪, রাহানে ০, হানহুমা বিহারী ৮, হৃদ্ধিমান শাহ ৪, অশ্বিন ০, উমেশ যাদব ৪ (অপরাজিত), মোহম্মদ শামি ১ (ব্যথা পেয়ে মাঠ ত্যাগ)।

হ্যাজলউড ও কামিন্স- এই দুই অজি পেসার ভারতীয় ব্যাটসম্যানদেরকে ডুবিয়েছেন। হ্যাইজেলউডের শিকার ভারতের ৫ ব্যাটসম্যান, আর কামিন্সের ৪ জন।

এদিকে, আগামী ২৬ ডিসেম্বর থেকে মেলবোর্নে শুরু হচ্ছে দুই দলের মধ্যকার চার ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট। ঐ টেস্ট থেকে দলের সাথে থাকছেন না নিয়মিত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। প্রথমবার সন্তানের বাবা হবেন তিনি। তাই দেশে ফিরে যাবেন কোহলি।

তবে অধিনায়কের প্রত্যাশা- সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচেই ঘুরে দাঁড়াবে ভারত। কোহলি বলেন, ‘বক্সিং-ডে টেস্টে ছেলেরা ঘুরে দাঁড়াবে বলেই আমার বিশ্বাস। সিরিজের পরের ম্যাচগুলোতে দল ভালো করবে। প্রথম টেস্ট জিতে দেশে ফিরতে পারলে অবশ্যই ভাল লাগতো।’

রাজশাহীর সময় ডট কম – ২০ ডিসেম্বর ২০২০

রিয়াল ছাড়ার জল্পনা খারিজ করলেন জিদান
লিভারপুলের ১২৯ বছরের ইতিহাসে এই প্রথম গোল করলেন গোলকিপার
ইতিহাস বাংলাদেশী ফুটবলার হামজা চৌধুরীর