ঢাকা মঙ্গলবার, জুলাই ২৭, ২০২১
বাঘায় হাট-বাজার উন্নয়নের কোন উদ্দ্যোগ নেই, ক্রেতা-বিক্রেতারা চরম দুর্ভোগে
  • Rajshahir Somoy Desk
  • ২০২১-০৬-১৯ ২২:১৯:৪৯
বাঘায় হাট-বাজার উন্নয়নের কোন উদ্দ্যোগ নেই, ক্রেতা-বিক্রেতারা চরম দুর্ভোগে

ইলিয়াস আহম্মেদ, বাঘা প্রতিনিধি : রাজশাহীর বাঘায় হাট-বাজার থেকে সরকার প্রতি বছর কোটি টাকারও বেশী রাজস্ব আদায় করেন। অথচ এসব হাট-বাজার উন্নয়নে পরিকল্পিত কার্য়কর ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়নি। এতে প্রতিনিয়ত ক্রেতা-বিক্রেতাদের দুর্ভোগ বেড়েই চলেছে। ফলে হাট ও বাজার ব্যবসায়ীদের মাঝে তিব্র ক্ষোভ ও অসন্তু দেখা দিয়েছে।

জানা যায়, কৃষি ও ফলজ উৎপাদনশীল বাঘা উপজেলার লোকজন তাদের নিজস্ব ভুমিতে হরেক রকম ফলমুল ও নানা প্রকার শাকসবজি চাষাবাদ করে। এ থেকে একদিকে যেমন চাহিদা মেটাচ্ছেন, অন্যদিকে নিজেরা হচ্ছেন স্বাবলম্বী। স্থানীয় কৃষকদের কষ্টার্জিত মৌসুমী এসব ফসল যেমন আম, লিচু, পেয়ারা, কুল, কলা ও শাকসব্জি ক্রয়-বিক্রয়ের জন্য উপজেলায় প্রায় ৩০ টি পাইকারী ও খুরচা বাজার রয়েছে এগুলো হলো-বাঘা, চন্ডিপুর, জোতরাঘোব, ব্যাংগাড়ী, সরের হাট, খানপুর, নারায়নপুর, মনিগ্রাম, মিরগঞ্জ বিনোদপুর, আলাইপুর, পানিকুমড়া, হরিরামপুর, আড়পাড়া, আড়ানী, রুস্তমপুর, তেথুলিয়া, হরিনা, সোনাদহ ,বাউসা, প্রেমতলি, বিষ্টর হাট, দিঘা, পলাশী ফতেপুর, চকরাজাপুর, পাকুড়িয়া বলিহারসহ অন্যান্য বাজার উন্নয়নের ক্ষেত্রে নেই উল্লেখযোগ্য প্রয়োজনীয় ও পরিকল্পিত সরকারী উদ্দ্যোগ। যার কারনে স্থানীয় ক্রেতা-বিক্রেতারা প্রতিনিয়ত ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন ।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, উপজেলার প্রধান পাইকারী বাজার-বাঘা, মনিগ্রাম, আড়ানী, চন্ডিপুর, জোতরাঘোব, ব্যাংগাড়ী, তেথুলিয়া, বাউসা, সোনাদহ, আড়পাড়া, বলিহার, মিরগঞ্জ, পানিকুমড়া, পাকুড়িয়া, নারায়নপুর, এ সকল বাজারে ভরা মৌসুমে প্রতিদিন গড়ে ৬০ থেকে ৭০ ট্রাক কাঁচামাল বিশেষ করে আম ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, নরসিংদি, ভৌরব, সিলেট ফেনী, চট্যগ্রাম, খুলনাসহ দেশের বিভিন্ন পাইকারী বাজারে সরবরাহ করা হয়। এতে এখানকার হাট-বাজার থেকে সরকারের বছরে কোটি-টাকারও বেশী রাজস্ব আদায় হয়। অথচ এসব হাট-বাজাের পরিকল্পিত তেমন উন্নয়ন চোখে পড়ে না বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

এসব বাজারে রয়েছে অন্তহীন সমস্যা। বাজারে কাঁচামাল রাখার ঘর, পানি নিস্কাশনের ড্রেনেজ ব্যাবস্থা, বিশুদ্ধ পানীয় জলের ব্যাবস্থা, গণশৌচাগার, ময়লা-আবর্জনা ফেলার নির্দিষ্ট স্থানসহ অনেক সমস্যা। এছাড়া ক্রেতা-বিক্রেতারাা উপজেলার বাঘা, মনিগ্রাম, আড়ানী হাট-বাজারের সড়ক দখল করে পসরা বসিয়ে তাদের উৎপাদিত কাঁচা পণ্য নিয়ে বোসলে লোক-জনের ভিড়ে বাজারে যানজটের সৃষ্টি হয়। এসব কারনে প্রতিনিয়ত দুর্ভোগের পাশাপাশি দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন অনেকে।

এছাড়া বর্ষা মৌসুমে কোনো কোনো হাট-বাজারের চেহারা সত্যিই পাল্টে যায়। কাদামাটি আর ময়লা আবর্জনা হাট-বাজারের পরিবর্তে ডাস্টবিনে রুপ নেয়। যা দেখে মনে হয়, এতে যেনো রোপা-আমনের জন্য প্রশস্ত ধানক্ষেত। এছাড়া অধিকাংশ বাজারে গণশৌচাগার না থাকায় ক্রেতা-বিক্রেতারা যত্রতত্র মলমূত্র ত্যাগ করায় দুর্গন্ধে বাজারের পরিবেশ দুষিত হয়।

এ বিষয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড, লায়েব উদ্দীন লাভলু বলেন, এ সংক্রান্ত বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের সাথে যোগাযোগ করে অতিদ্রুত এসব হাট-বাজার উন্নয়নের ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পাপিয়া সুলতানা বলেন, এ বিষয়ে আইন শৃংখোলা মাসিক মিটিংএ সংশ্লিষ্টদের সচেতনার লক্ষে আলোচনা করা হয়। তার পরেও যদি সমাধান না হয় তাহলে হাট-বাজারের সড়ক দখল করে পণ্য বেচা-কেনায় জানজট, জনদুরভোগ ও দুর্ঘটনা লাঘবে অতিসত্ত্বর ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

রাজশাহীর সময় /এএইচ

রাজশাহী নগর পুলিশের অভিযানে আটক ২৩
রামেক হাসপাতালে আরও ২১ জনের মৃত্যু
রাজশাহীর মোহনপুরে ইয়াবা ও হেরোইনসহ মাদক কারবারী গ্রেফতার ১