ঢাকা মঙ্গলবার, জুলাই ২৭, ২০২১
স্ত্রীকে উত্ত্যক্ত ও কুপ্রস্তাব দেয়ায় অটোচালককে হত্যা
  • Rajshahir Somoy Desk
  • ২০২১-০৬-১৫ ২২:৪১:৩২
স্ত্রীকে উত্ত্যক্ত ও কুপ্রস্তাব দেয়ায় অটোচালককে হত্যা, গ্রেফতার ৫

অনলাইন ডেস্ক : পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার চাঞ্চল্যকর ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা চালক সেলিম হোসেন (২৫) হত্যার ৭২ ঘণ্টা পর রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। এ ঘটনার সাথে জড়িত এক নারীসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৫ জুন) দুপুরে পাবনার পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে সংবাদ সম্মেলনে ঘটনার বিস্তারিত জানান পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম খান।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, সাঁথিয়া উপজেলার ছোন্দহ এলাকার আবু সাঈদ মোল্লার ছেলে রাসেল হোসেন (২২), বহলবাড়িয়া পূর্বপাড়া গ্রামের সোলেমান শেখের ছেলে রানা শেখ (২১), একই এলাকার আল আমিনের স্ত্রী শীলা খাতুন (২১), ওয়াজেদ সরদারের ছেলে হোসেন আলী (১৮) ও আতাইকুলার বৃহস্পতিপুর গ্রামের মৃত রায়হান উদ্দিনের ছেলে ছিনতাইকৃত অটোরিকশার ক্রেতা দেলোয়ার হোসেন (৩৮)।

পুলিশ সুপার জানান, গ্রেপ্তারকৃ সবাই নিহত ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা চালক সেলিম হোসেনের পূর্বপরিচিত। নিহত সেলিম গ্রেপ্তারকৃত শীলা খাতুনকে মাঝে মধ্যে উত্ত্যক্ত করতো এবং কুপ্রস্তাব দিত। বিষয়টি শীলা তার স্বামী আল আমিনকে জানালে গ্রেপ্তারকৃতরাসহ কয়েকজন গত ৯ জুন দুপুরে আল আমিনের বাড়িতে বসে অটোরিকশা চালক সেলিমকে হত্যার পরিকল্পনা করে।

জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, পরিকল্পনা অনুযায়ী আসামিরা ৯ জুন বিকেলে রিজার্ভ ভাড়ার কথা বলে পূর্বপরিচিত অটোরিকশা চালক সেলিমকে মাহমুদপুর বাজারে আসতে বলে। সেলিম আসলে আসামিরা অটোরিকশা নিয়ে বিভিন্ন স্থানে ঘোরাঘুরি শেষে বহালবাড়ীয়ার কালুকাটা নির্জন স্থানে পৌঁছে সেখানে সেলিমসহ আসামি চারজন গাঁজা সেবন করে। রাত ৯টার দিকে অটোচালক সেলিম নেশাগ্রস্ত হয়ে পড়লে আসামিরা সেলিমকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যা করে।

হত্যার পর রাতেই তারা ব্যাটারি চালিত অটোরিকশাটি আতাইকুলা বাজারের ভাংরি ব্যবসায়ী দেলোয়ারের কাছে ৩১ হাজার ৫০০ টাকায় বিক্রি করে টাকা নিজেদের মধ্যে ভাগ করে নিয়ে বিভিন্ন স্থানে পালিয়ে যায়।

সাঁথিয়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসিফ মোহা. সিদ্দিকুল ইসলাম জানান, ঘটনার দিন রাতেই ছেলের বাবা তোফাজ্জল হোসেন বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামাদের বিরুদ্ধে থানায় হত্যা মামলা করেছে। এরপর পুলিশ তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় ১২ জুন ঢাকার ধামরাই নওগাঁ বাজারের বক্কারের ইটভাটা থেকে রাসেল ও রানাকে গ্রেপ্তার করে। পরে তাদের দেওয়া তথ্যর ওপর ভিত্তি করে শীলা খাতুন, হোসেন আলীকে গ্রেপ্তার করে ও আতাইকুলা বাজারের ভাঙড়ি ব্যবসায়ী দেলোয়ারের দোকানে অভিযান চালিয়ে ব্যাটারি চালিত অটোরিকশাটি উদ্ধার করে ও দেলোয়ারকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারকৃতদের সেলিম হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। অন্যদের আসামিদেরও গ্রেপ্তার করতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান তিনি। সময় টিভি

দর্শনা নিউজ 24/এইচ জেড

পাবনায় অবৈধ মেলামেশায় ধরা মসজিদের ইমাম! রাতভর বেঁধে রাখল গ্রামবাসী
সুজানগরের খয়রানে বাড়িতে ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ
পাবনায় হাসপাতালের ভেতরে চিকিৎসককে লাঞ্ছিত