ঢাকা সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২০
রাজশাহীর মসজিদ মিশন একাডেমিকে ‘জামায়াতমুক্ত’ করতে মাঠে নামলেন মুক্তিযোদ্ধারা
  • Rajshahir Somoy Desk
  • ২০২০-০৮-২২ ২২:১৫:০৮
রাজশাহীর মসজিদ মিশন একাডেমিকে ‘জামায়াতমুক্ত’ করতে মাঠে নামলেন মুক্তিযোদ্ধারা

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীর মুক্তিযোদ্ধারা মসজিদ মিশন সংস্থা ও তাদের পরিচালিত মসজিদ মিশন একাডেমিকে ‘জামায়াতমুক্ত’ করার দাবিতে এবার মাঠে নামলেন ।

শনিবার (২২ আগস্ট) বিকালে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টির মাঝেও মানববন্ধনে দাঁড়িয়ে তারা মসজিদ মিশন থেকে স্বাধীনতাবিরোধী শক্তিকে অপসারণ করার দাবি জানান।

রাজশাহী মহানগরীর সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে প্রায় ঘণ্টাব্যাপী এই মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, রাজশাহী নগরীর প্রাণকেন্দ্র সাহেববাজার বড়কুঠি এলাকায় মসজিদ মিশন একাডেমিতেই মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী চক্রান্ত হয়। এমন পরিস্থিতিতে মুক্তিযোদ্ধারা রাস্তায় না নেমে থাকতে পারলেন না।

প্রসঙ্গত, মসজিদ মিশন সংস্থা ১৯৭৬ সালে জেলা সমাজসেবা কার্যালয় থেকে নিবন্ধন নেয়। পরে তারা রাজশাহীতে একে একে তিনটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গড়ে তোলে। অথচ সংস্থার গঠনতন্ত্রে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠার কথা ছিল না। আবার নিবন্ধন নেয়ার পর মসজিদ মিশন সংস্থা কোন দিন অডিট করায়নি। কমিটিও অনুমোদন নেয়নি। নিজেদের ইচ্ছেমতোই কমিটি করা হয়। অথচ এই কমিটির গঠন করে দেয়া পরিচালনা পর্ষদই মসজিদ মিশন একাডেমি পরিচালনা করে থাকে।

সম্প্রতি শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ও রাজশাহী সদর আসনের সংসদ সদস্য গণমাধ্যমকে জানান, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অডিটে ধরা পড়েছে যে মসজিদ মিশন একাডেমির প্রায় ১১ কোটি টাকার কোন হদিস পাওয়া যাচ্ছে না। এই টাকা সরকারবিরোধী কর্মকাণ্ডে ব্যয় করা হয়েছে।

কারণ, মসজিদ মিশন সংস্থা জামায়াতের একটি সংস্থা। আর মসজিদ মিশন একাডেমিতেও নিয়োগপ্রাপ্ত সকল শিক্ষক-কর্মচারী জামায়াত-শিবিরের রাজনীতির সঙ্গে সরাসরি সম্পৃক্ত।

শুধু তাই নয়, সরকারি গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিবেদনে উঠে এসেছে, জামায়াতের শীর্ষ নেতাদের ফাঁসি কার্যকরের পর এই প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষকরা গায়েবানা জানাযা পড়েছেন। হামলা করেছেন পুলিশের ওপর। বিভিন্ন সময় প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষকরা গ্রেপ্তার হয়েছেন। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের রাজনৈতিক অধিশাখা-২ এবং রাজশাহী মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের প্রতিবেদনেও বিষয়টি উঠে এসেছে। এসব বিষয় নতুন করে আলোচনায় আসার পর এবার মসজিদ মিশন একাডেমির পরিচালনা পর্ষদ পুনর্গঠনের দাবি তুললেন রাজশাহীর মুক্তিযোদ্ধারা।

মানববন্ধন কর্মসূচিতে তারা বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হবে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার। তাই মসজিদ মিশন একাডেমিকে জামায়াত-শিবিরের খপ্পর থেকে বের করতে হবে। সেখানে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তির কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করতে হবে। তাদের এ দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত তারা রাস্তায় থাকবেন।

বক্তারা বলেন, মসজিদ মিশন একাডেমি জামায়াত নেতাদের নির্ধারণ করে দেয়া বই কোমলমতি শিক্ষার্থীদের পড়ায়। এর মাধ্যমে তাদের সাম্প্রদায়িক করে গড়ে তোলে। এই মসজিদ মিশন একাডেমি ১১ কোটি টাকা লুটপাট করে সেই টাকায় রাজশাহীতে সহিংসতা করেছে। রাজশাহীকে অস্থিতিশীল করেছে।

তারা বলেন, দ্রুত সময়ের মধ্যে উচ্চপর্যায়ের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে মসজিদ মিশন একাডেমির পরিচালনা পর্ষদ পুনর্গঠনের দাবি জানান। এই মানববন্ধন থেকে আগামী ২৫ আগস্ট বিকালে একই দাবিতে একই কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের রাজশাহী জেলা ও মহানগর ইউনিটের ব্যানারে এই মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন মহানগর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার ডা. আবদুল মান্নান। পরিচালনা করেন রাজশাহী থিয়েটারের সাবেক সভাপতি কামার উল্লাহ সরকার কামাল।

অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন- মুক্তিযুদ্ধকালীন কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা শফিকুর রহমান রাজা, মুক্তিযোদ্ধা রবিউল ইসলাম, মহানগর বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক কবি আরিফুল হক কুমার, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মুল কমিটির জেলার সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান আলী বরজাহান, সম্মিলিত সাংষ্কৃতিক জোটের নগরের সাধারণ সম্পাদক দীলিপ কুমার ঘোষ, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন মঞ্চের রাজশাহীর সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাললাম আজাদ, জেলা মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অঞ্জনা সরকার, সাবেক ছাত্রনেতা মীর ইসতিয়াক আহম্মেদ লিমন প্রমুখ।

মানববন্ধনে উদীচি শিল্পীগোষ্ঠি, রাজশাহী থিয়েটার, আবৃত্তি পরিষদ, শহীদ জামিল আকতার রতন স্মৃতি সংসদসহ বিভিন্ন সামাজিক, সাংষ্কৃতিক ও পেশাজীবি সংগঠনের সদস্যরা একাত্মতা প্রকাশ করে অংশ নেন।

রাজশাহীর সময় ডট কম –২২ আগস্ট, ২০২০

ঢাকা-৫ ও নওগাঁ-৬ আসনে মনোনয়ন চূড়ান্ত
রাজশাহীর মসজিদ মিশন একাডেমিকে ‘জামায়াতমুক্ত’ করতে মাঠে নামলেন মুক্তিযোদ্ধারা
রিজভীর সামনেই বিএনপির দুই গ্রুপের সংঘর্ষ!