সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮, ০৪:০২ অপরাহ্ন

ক্যামেরার লেন্সে চোখ রাখা সবচেয়ে সুন্দর প্রাণী ওরা

ক্যামেরার লেন্সে চোখ রাখা সবচেয়ে সুন্দর প্রাণী ওরা

ফারহানা জেরিন এলমা : আইসবার্গ থেকে কীটপতঙ্গ, হামিংবার্ড থেকে উড়ন্ত মাছ ও বন্যজীবনের অসাধারণ সব মুহূর্ত ফ্রেমে এনে ২০১৮ সালের বর্ষসেরা ওয়াইল্ডলাইফ ছবির পুরস্কার জিতেছেন আলোকচিত্রীরা৷

গোল্ডেন কাপল

২০১৮ সালের গ্র্যান্ড টাইটেল জিতেছে চীনের চিনলিং পর্বতের সোনালি রঙা চ্যাপটা নাকের এক জোড়া বানরের এই ছবি৷ নেদারল্যান্ডসের আলোকচিত্রী মার্সেল ফান অস্টেন বসন্তে তুলেছিলেন এই বানর জুটির ছবি৷ শুক্রবার লন্ডনের ন্যাচারাল হিস্ট্রি মিউজিয়ামে এই পুরস্কার ঘোষণা করা হয়৷

ড্রিম ডুয়েল

এ বছর রাইজিং স্টার পোর্টফোলিও অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন বেলজিয়ামের আলোকচিত্রী মিশেল ডি’ অলট্রেমঁ৷ অন্ধকার নিয়ে আসা ঝড়ো বাতাসের মধ্যে দুটি পুরুষ হরিণের গর্জনের শব্দ ভেসে আসছিল বেলজিয়ামের আর্ডেন বনের গাছে গাছে প্রতিধ্বনিত হয়ে৷ নারী হরিণটি কার হবে, তাই নিয়ে চলছিল বিরোধ৷ কেউ ছাড় দিতে রাজি নয়, তাই তারা জড়িয়ে পড়ে শিং যুদ্ধে৷ এক পর্যায়ে আটকে যায় তাদের শিং৷ সে সময়ই গাছের আড়াল থেকে এই ছবি তোলেন মিশেল৷

লাউঞ্জিং লেপার্ড

বিশ্রামরত চিতাবাঘের এই ছবির জন্য ২০১৮ ‘ইয়ুথ ওয়াইল্ডলাইফ ফটোগ্রাফার অফ দ্য ইয়ার’ পুরস্কার জিতেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার স্কাই মিকার৷ বৎসোয়ানার মাশাতু গেম রিজার্ভে চিতা বাঘের নাগাল পাওয়া খুবই দুষ্কর৷ এই দফায় আলোকচিত্রীর ভাগ্য ভালো ছিল বলতে হয়৷ কয়েক ঘণ্টা বাঘের পিছু নিয়ে মাথোজা নামের এই নারী চিতার নাগাল পান তিনি৷

ডাক অফ ড্রিমস

সারা বিশ্বের মধ্যে নরওয়ের ব্যারেন্টস সাগরেই সবচেয়ে বেশি সি-বার্ডের দেখা মেলে৷ এক সকালে সাগরের উত্তর উপকূলের ভারাঙার উপত্যকায় লম্বা লেজের এই হাঁসের ছবি তোলেন স্পেনের তরুণ আলোকচিত্রী কার্লস পেরেস নাভাল৷ এ ছবির জন্য ১১ থেকে ১৪ বছর বয়সিদের মধ্যে সেরা হয়েছেন তিনি৷

পাইপ আউলস

ভারতের পাঞ্জাব রাজ্যে যাত্রাপথে গাড়ি থামিয়ে বাবার ক্যামেরা নিয়ে গাড়ির জানালা দিয়ে পুরনো পাইপে আশ্রয় নেওয়া পেঁচার এই ছবি তুলে পুরস্কার জিতেছে অর্শদ্বীপ সিং৷ ১০ বছর ও তার চেয়ে কম বয়সিদের ক্যাটাগরিতে পুরস্কার পেয়েছে সে৷ বন ধ্বংসের এই সময়ে বন্যপ্রাণীর নগরে ঠাঁই নিয়ে টিকে থাকার বাস্তবতা উঠে এসেছে এই ছবিতে৷

হেলবেন্ট

যুক্তরাষ্ট্রের টেনেসির টেলিকো নদীতে হেলবেন্ডারের কবলে পড়া সাপের এই ছবির জন্য উভচর ও সরীসৃপের আচরণ ক্যাটাগরিতে পুরস্কার জিতেছেন মার্কিন আলোকচিত্রী ডেভিড হেরাসিমটস্চুক৷ পরে অবশ্য পালিয়ে যেতে সক্ষম হয় সাপটি৷সূত্র:যুগান্তর।

‘ডেজার্ট রেলিক’

মরুভূমির উদ্ভিদ ভেলভিচিয়ার এই ছবি তুলে প্ল্যান্টস অ্যান্ড ফাঙ্গি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার জিতেছেন জার্মানি/যুক্তরাষ্ট্রের আলোকচিত্রী জেন গুইটোন৷ আফ্রিকার দক্ষিণাঞ্চলের নামিব মরুভূমিতে সারা দিন ঘুরে এটি পেয়ে যান তিনি৷ মরুর এই উদ্ভিদ হাজার বছর পর্যন্ত বাঁচে৷

রাজশাহীর সময় ডট কম২৫ অক্টোবর ২০১৮





© All rights reserved © 2018 rajshahirsomoy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com