মঙ্গলবার, ১৮ Jun ২০১৯, ১২:৩৪ পূর্বাহ্ন

মেট্রো ফ্যাশনে তরুণীদের নজর সারারা থ্রি-পিসে

মেট্রো ফ্যাশনে তরুণীদের নজর সারারা থ্রি-পিসে

ফারহানা জেরিন এলমা : ঈদে নতুন পোশাক চাই। সঙ্গে ছেলে-মেয়েদের বায়না। শাড়ি, থ্রি-পিস, লেহেঙ্গা, পাঞ্জাবি, শার্ট, প্যান্ট, টুপি, জুতা- কী নেই তালিকায়। এর ওপর কসমেটিক্স। এসব কেনা-বেচায় জমে উঠছে রাজধানীর ঈদবাজার। সবখানেই যেন সাজসাজ রব। আর রমজান যত গড়াচ্ছে, বাজার অভিমুখী ঢল তত বাড়ছে।

শনিবার সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, ক্রেতাদের একটি বড় অংশের গন্তব্য ছিল দক্ষিণ এশিয়ার বৃহত্তম শপিং মল যমুনা ফিউচার পার্কে। শনিবার সাপ্তাহিক ছুটির দিনে এখানে ছিল উপচেপড়া ভিড়। সকালের ভিড় সময় যত গড়িয়েছে, গাঢ় হয়েছে তত। ক্রেতার চাহিদা অনুযায়ী দোকানগুলোও থরে থরে সাজিয়েছে বর্ণিল পণ্য। যমুনা ফিউচার পার্কের ডি-জোনের ‘মেট্রো ফ্যাশন’ ঘুরে দেখা গেছে, পছন্দসই পোশাক কিনতে নানা বয়সের মানুষ ভিড় করছেন।

সেখানে ডিসপ্লে করা আছে ভারত ও পাকিস্তানের বাহারি ডিজাইন ও নান্দনিক ফ্যাশনের কারচুপি এবং পাথরের কাজ করা ছোট ও বড়দের থ্রি-পিস, গাউন, শাড়ি ও পাঞ্জাবি। ক্রেতারা ঘুরে ঘুরে এসব পোশাক দেখছেন, পছন্দ করে কিনছেন।

শোরুমের দায়িত্বে থাকা মো. কবির হোসেন যুগান্তরকে বলেন, ঈদকে ঘিরে ভারত ও পাকিস্তান থেকে বাহারি ডিজাইনের পোশাক আনা হয়েছে। মানে ভালো ও দামে তুলনামূলক কম হওয়ায় সব ধরনের ক্রেতা পছন্দ করছেন। কিনছেন। এসব পোশাকের মধ্যে সবচেয়ে বেশি বিক্রি হচ্ছে মেয়েদের সারারা থ্রি-পিস। মসলিন থ্রি-পিসও ভালো চলছে। তিনি আরও বলেন, গরম মাথায় রেখে আমরা পাতলা কাপড়ের পোশাক এনেছি- যা পরতে আরামদায়ক হবে।

এই শোরুমে ঈদ পোশাক কিনতে আসা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী অথই যুগান্তরকে বলেন, মেট্রো শোরুমে ভালো কালেকশন দেখছি। এরমধ্যে সবচেয়ে বেশি পছন্দ হয়েছে নতুন কালেকশন সারারা থ্রি পিস। তিনি আরও বলেন, শুধু আমার জন্যই কেনাকাটা করিনি, বাবা ও ছোট ভাইয়ের জন্য পাঞ্জাবি কিনেছি। সব মিলে কেনাকাটা ভালোই হয়েছে।

রাজধানীর উত্তরা থেকে মায়ের সঙ্গে আসা তানিয়া সুলতানা যুগান্তরকে বলেন, এই শোরুমের সব পোশাক অনেক ভালো লেগেছে। কোনটা রেখে কোনটা কিনব বুঝে উঠতে পারছিলাম না। পরে সারারা থ্রি-পিস কিনেছি। বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা থেকে আসা আসমা বেগম বলেন, শাড়িগুলোর কাজ অনেক চমৎকার। পুরো শাড়িতে পাথর ও কারচুপির কাজ। দেখেই যেন মনে হচ্ছে আভিজাত। আজ দেখে গেলাম। দুয়েক দিনের মধ্যে এসে কিনে নেব। দেশের বৃহত্তম এ শপিং মলে (যমুনা ফিউচার পার্কে) প্রথম সারির সব ব্র্যান্ডের বিশাল বিশাল শোরুম থাকায় ক্রেতারা সহজেই পছন্দের পণ্য কিনতে পারছেন। ইয়লো, গ্রামীণ, রিচম্যান, আর্টিসান, আর্টিস্টি কালেকশন, ফিট এলিগেন্স, স্বদেশী, একটাসি, ইজি, ক্যাটসআই, লা-রিভ, ইনফিনিটি, ইউনিক্লো, জেন্টল পার্ক, প্লাস পয়েন্টের মতো দেশের সব খ্যাতনামা ফ্যাশন হাউসে ক্রেতাদের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। দেশি পোশাকের শোরুমগুলোতেও ব্যস্ততার কমতি ছিল না।

কোটি টাকার ঈদ উপহার : ক্রেতাদের আনন্দ বহুগুণ বাড়িয়ে দিতে ‘কোটি টাকার ঈদ উপহার’ ক্যাম্পেইন চালু করেছে যমুনা ফিউচার পার্ক কর্তৃপক্ষ। এ অফারের আওতায় পার্কের যে কোনো শোরুম থেকে মাত্র এক হাজার টাকার কেনাকাটা করে যে কেউ পেতে পারেন মোটরসাইকেল, টিভি, ফ্রিজ, স্বর্ণালঙ্কার, ইলেকট্রনিক্স ও ইলেকট্রিক আইটেমসহ নানা পণ্য। প্রতিটি কেনাকাটার বিপরীতে ক্রেতারা নিশ্চিত উপহার পাবেন।

যমুনা ফিউচার পার্ক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, কোটি টাকার ঈদ উপহার ক্যাম্পেইনে অংশ নিতে ক্রেতাকে গুগল প্লে স্টোর অথবা অ্যাপ স্টোর থেকে যমুনা ফিউচার পার্ক অ্যাপ ডাউনলোড করে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। এরপর কেনাকাটার বিবরণী দিলেই ক্রেতা তৎক্ষণাৎ নিশ্চিত উপহার পাবেন।সূত্র: যুগান্তর।

ক্রেতারা যাতে স্বাচ্ছন্দ্যে গিফট পেতে পারেন, সেজন্য ওয়েস্ট কোর্টে গিফটের বুথ করা হয়েছে। অ্যাপসে তথ্য দেখানোর সঙ্গে সঙ্গে ক্রেতা তার গিফট বুথ থেকে সংগ্রহ করতে পারবেন। কোটি টাকার ঈদ অফার ক্যাম্পেইনের আপডেট তথ্য যমুনা ফিউচার পার্ক ফেসবুক পেজে (www.facebook.com/JFPbangladesh) জানা যাবে।

রাজশাহীর সময় ডট কম১৯ মে ২০১৯





© All rights reserved © 2018 rajshahirsomoy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com