সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০১৯, ০২:৫২ অপরাহ্ন

দ্বিতীয় সারির নেতৃত্বে দুর্নীতি, বিএনপির ভাঙন দৃশ্যমান!

দ্বিতীয় সারির নেতৃত্বে দুর্নীতি, বিএনপির ভাঙন দৃশ্যমান!

রাজশাহীর সময় ডেস্ক :  নেতৃত্ব শূন্যতার মধ্যে পড়েছে বিএনপি। বিএনপিতে দ্বিতীয় সারির নেতারা নেতৃত্ব দেয়ায় দলটি রাজনৈতিকভাবে চরম সংকটের সম্মুখীন হয়েছে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

বিএনপির রাজনৈতিক সংকটকে নিজেদের অদূরদর্শিতার ফল হিসেবে বর্ণনা করে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক ড. মিজানুর রহমান বলেন, ২০০১ সালে বিএনপি যখন ক্ষমতায় আসে তখন দলটির দ্বিতীয় পর্যায়ের নেতারাই মূলত নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। তাদের বিরুদ্ধে বর্তমানে অসংখ্য দুর্নীতির মামলা রয়েছে। তাদের অনেকেই দলকে মুখ্য করে না দেখে নিজেদের ব্যক্তিস্বার্থকে প্রতিষ্ঠা করতে নানা দুর্নীতির জালে জড়িয়ে পড়েন। এর উৎকৃষ্ট উদাহরণ দলটির কারান্তরীণ চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া এবং লন্ডনে পলাতক বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

তিনি আরো বলেন, স্পষ্ট করে বলতে গেলে বিএনপির রাজনীতিতে অবিশ্বাস ও আনুগত্যের অনীহা দৃশ্যমান। ঐক্যবদ্ধ বিএনপিকে ভেঙ্গে দিয়ে নেতারা বিভিন্ন-পন্থীদের ছায়াতলে আশ্রয় খোঁজার চেষ্টা করছেন। বিএনপি নেতাদের মধ্যে দল প্রেম ও দলের প্রতি অভক্তি স্পষ্ট হয়েছে বিগত কয়েক বছরে। খালেদা-তারেকের অশুভ ছায়া বিএনপিতে ভর করেছে।

এদিকে বিষয়টি ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. শান্তনু মজুমদার বলেন, নেতৃত্বের অভাবে বিএনপি এখন পাকিস্তানিদের পরিত্যক্ত সম্পত্তিতে রূপ নিয়েছে। বিএনপি নেতারা ঋণখেলাপি এবং দখলবাজ হিসেবে নিজেদের পরিচয় করিয়ে দিয়েছেন। এবারের নির্বাচনে নেতৃত্বশূন্যতা কাটানোর জন্য ভাবমূর্তি সম্পন্ন নেতার অভাব ছিল। এর প্রেক্ষিতে বিএনপি ড. কামাল হোসেনকে নেতা মেনে ঐক্যফ্রন্ট গঠন করেছিল। ড. কামাল হোসেনের আকাশ-কুসুম কথায় বিএনপি কর্মীরা এবং আওয়ামী লীগ বিরোধী শক্তি কিছুটা চাঙ্গা হয়েছিল। সর্বোপরি বিএনপিতে এতো ব্যাপকভাবে মনোনয়ন বাণিজ্য হয়েছে যে নির্বাচনের আগেও তাদের ভাবমূর্তি ভূলুণ্ঠিত হয়ে পড়েছিল। সুতরাং ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে বিএনপির পরাজয় অবধারিত ছিল। দ্বিতীয় সারির নেতাদের লোভ-লালসা, বিভিন্ন কমিটির মনোনয়ন এবং সর্বশেষ সংসদ নির্বাচনে সীমাহীন মনোনয়ন বাণিজ্যের কারণে লজ্জাজনক পরাজয়ে সাংগঠনিকভাবে একেবারে ভেঙ্গে পড়েছে বিএনপি। সেক্ষেত্রে বিএনপির ঘুরে দাঁড়ানোটা বড় ধরনের চ্যালেঞ্জ বলা চলে।সূত্র: বাংলা নিউজ ব্যাংক

রাজশাহীর সময় ডট কম – ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯





© All rights reserved © 2018 rajshahirsomoy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com