বুধবার, ১৬ জানুয়ারী ২০১৯, ১১:৫৪ অপরাহ্ন

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকার মাঝি হতে চান বাবুল

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকার মাঝি হতে চান বাবুল

কাজী জমিরুল ইসলাম মমতাজ (সুনামগঞ্জ): সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে আওয়ামীলীগের নৌকার মাঝি হতে চান শেখ হাসিনার অতি বিশ^স্ত ভ্যানগার্ড র্নিলোভ পরিচ্ছন্ন ও ত্যাগী নেতা করুণা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল।

করুণা শব্দের অর্থ হচ্ছে দয়া আর স্ন্ধিু শব্দের অর্থ হচ্ছে সাগর মানে দয়ার সাগর এই আক্ষরিক অর্থেই ছোটবেলা তার পিতামাতা নাম রেখেছিলেন করুণা সিন্ধু চৌধুরী ডাক নাম বাবলু হিসেবে।

১৯৬১ সালের ২৬ অক্টোবর জেলার তাহিরপুর উপজেলার বৈলনপুর গ্রামে একটি সম্রান্ত হিন্দু জমিদার পরিবারে পিতা স্বর্গীয় কৌশিক চৌধুরী ও মাতা স্বর্গীয় প্রীতি চৌধুরীর ঘর আলোকিত করে জন্মগ্রহন করেন এই করুণা। তিনভাই ও দুইবোনের মধ্যে তিনি সবার বড়। ১৯৭৬ সালে তাহিরপুর উপজেলার বাদাঘাট সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এস এস সি পাশ করে ঐ বছরই তিনি সুনামগঞ্জ সরকারী মহাবিদ্যালয়ে এইচ এস সিতে ভর্তি হন এবং তখন থেকে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সংগঠন জাতির পিতা বঙ্গঁবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতেগড়া সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সুনামগঞ্জ জেলা শাখার একজন কর্মী হিসেবে রাজনীতির মাঠে অবাধ বিচরণ শুরু করেন।

১৯৭৯ সালে সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন শুরু করেন এবং ৮০ সালে কলেজ ছাত্র সংসদ নির্বাচেন ছাত্রলীগ প্যানেলে নাট্য ও আপ্যায়ন সম্পাদক পদে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হন। ১৯৮৭ সালে জেলা যুবলীগের দু’দু’বার যুগ্ম আহবায়কের দায়িত্ব পালন করেন এবং তিনি তার সততা,নিষ্ঠা আর পরিচ্ছন্নতার মনোভাব নিয়ে প্রতিটি মানুষের মাঝে নিজেকে উপস্থাপন করতে সক্ষম হন। সেই করুণ সিন্ধু চৌধুরীকে আর পেছনের দিকে তাকাতে হয়নি। পরবর্তীতে সুনামগঞ্জ চেম্বার অর্ব কমার্স এন্ড ইন্ড্রাষ্ট্রিজের সিনিয়র সহ সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন এবং এর পরেই তিনি জেলা কৃষকলীগের সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি এরশাদ সরকার বিরোধী আন্দোলনে দেশ যখন জরুরী অবস্থার মধ্যে দিয়ে চলছিল ঠিক সেই সময় তিনি সহযোদ্ধাদের নিয়ে রাজপথের অগ্রভাগে থেকে আন্দোলন সংগ্রাম করতে গিয়ে পুলিশের হাতে গ্রেফতার হন।

পরবর্তীতে তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী কৃষকলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য পদ লাভ করেন এবং বর্তমানে তিনি সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদকের দায়িত্ব পালনের পাশপাশি সাবেক জেনারেল বডি মেম্বার এফবিসিসিআই ঢাকা,সভাপতি শ্রী শ্রী অদ্বৈত জন্মধাম পনতীর্থ পরিচালনা কমিটি,সিনিয়র সহ-সভাপতি তাহিরপুর উপজেলা কল্যান সমিতি সুনামগঞ্জ। আজীবন সদস্য বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি,শহীদ মুক্তিযুদ্ধা জগৎজ্যোতি পাঠাগার সুনামগঞ্জ,সিলেট বিভাগ উন্নয়ন পরিষদ ঢাকা এর দায়িত্ব পালন করে চলছেন। তিনি জেলার কোন অসহায় মানুষজন কোন কাজ নিয়ে তার কাছে গেলে তিনি তার সাধ্যমতো পকেটের টাকা খরচ করে উপকার করার চেষ্টা করেছেন। তিনি একজন স্বজ্জন,র্নিলোভ,পরিচ্ছন্ন ,ত্যাগী ও সৎ নেতা হিসেবে জেলাবাসীর হৃদয়ে স্থান করে নিতে সক্ষম হয়েছেন।

সদা হাস্যজ্জল এই মানুষটি বিনয়ের সাথে তার আচার আচরণ ও চারিত্রিক বৈশিষ্ঠ দিয়ে তার আদর্শিক অভিরাম রাজনৈতিক পথচলা শুধুমাত্রই মানুষের কল্যাণে । ফলে একজন সুবক্তা করুণা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল তার বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনে প্রতিটি দিন ও ক্ষণ শুধুমাত্র মানুষের পাশে থেকেই নিরলসভাবে কাজ চালিয়ে যাওয়াই তার একান্ত প্রচেষ্টা। দীর্ঘকাল ধরে তার প্রাণের সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত তিনি ইচ্ছে করলে অনেক টাকাকড়ি কামাতে পারতেন কিন্তু তিনি তার দলীয় সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আদর্শিক একজন রাজনৈতিক ভ্যানগার্ড হিসেবে বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রাম ও বিশাল কর্মীবাহিনীদের নিয়ে পথচলায় আজ তিনি নিঃস্ব। পৈত্রিক সম্পত্তির উপার্জন থেকে টাকা এনে সংগঠনের পেছনে ও অসহায় মানুষজনের কল্যাণে ব্যায় করতে দেখা গেছে।কিন্তু তিনি কখনো পথভ্রষ্ট হয়ে টাকার পাহাড় গড়ার স্বপ্নেঁ বিভোর হননি,বরং তিনি আদর্শিক একজন রাজনৈতিক নেতা হিসেবে জেলাবাসীর হৃদয়ে জায়গা করে নিতে সক্ষম হয়েছেন।

নির্বাচন কমিশন কর্তৃক ঘোষিত আগামী মার্চে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে করুণ সিন্ধু চৌধুরী বাবুল সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হতে চাইছেন তৃনমূল আ,লীগের নেতাকর্মীসহ সর্বস্থরের জনসাধারনে দাবীর প্রেক্ষিতে। এর আগে তিনি সুনামগঞ্জ ১আসনে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ থেকে তিন তিন বার মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন যদিও মনোনয়ন পাননি তবে থেমে থাকেন নি তিনি।

শেখ হাসিনার একজন নিবেদিত ভ্যানগার্ড হিসেবে এই বাবুল নৌকার মনোনীত প্রার্থীকে বিজয়ী করতে বিরামহীনভাবে ছুটে বেরিয়েছেন গ্রাম থেকে গ্রামান্তরের সাধারন মানুষের কাছে ফলে সম্প্রতি জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীদের বিজয়ে তার ভূমিকা ছিল অবিস্মরনীয়। তিনি প্রতিটি মানুষের শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় সিক্ত হয়েছেন সম্প্রতি জাতীয় নির্বাচনের নির্বাচনী প্রতিটি প্রচার প্রচারনায়। সাধারণ মানুষের সমর্থনে নিয়ে আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামীলীগের প্রার্থী হিসেবে জনমত জরিপে অনেক অনেক এগিয়ে আছেন এই ত্যাগী ও নিবেদিত কর্মীবান্ধব নেতা শেখ হাসিনার আর্দশের ভ্যানগার্ড কুরনা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল।

তাহিরপুর উপজেলাবাসীর বিভিন্ন জনের সাথে কথা বলে জানা যায় জনপ্রিয় জননেতা করুনা সিন্ধু চৌধুরী বাবুলকে উপজেলা চেয়ারম্যান পদে যদি দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হয় তাহলে তৃনমূলে কারো মধ্যে কোন দ্বিধাদ্বন্ধ থাকবে না বরং তিনি প্রার্থী হলে নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত হবে বলে সর্বমহলে আলোচিত হচ্ছে। কারন জনপ্রিয় আওয়ামীলীগ নেতা করুনা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল সম্পর্কে তার অতিথি কর্মকান্ড গুলো সবার জানা।

রাজশাহীর সময় ডট কম১৪ জানুয়ারী ২০১৯





© All rights reserved © 2018 rajshahirsomoy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com