বৃহস্পতিবার, ১৭ জানুয়ারী ২০১৯, ০১:২৮ পূর্বাহ্ন

স্বর্ণের দোকানে চুরি মামলার ময়নাতদন্ত

স্বর্ণের দোকানে চুরি মামলার ময়নাতদন্ত

চুরি যাওয়া স্বর্ন ও গ্রেফতারকৃতরা। ছবি: সংগ্রহীত

নওগাঁ প্রতিনিধি:  নওগাঁ শহরের সোনাপট্টির একটি স্বর্ণের দোকানে গত দুই মাস আগে চুরি হয়। ইতোপূর্বে জেলার অন্যান্য উপজেলার স্বর্ণের দোকানে চুরি হলেও তেমন গুরত্ব পাইনি। তবে এ চুরিতে প্রশাসনের টনক নড়ে।

সিসি টিভিতে ধারনকৃত ভিডিও ফুটেজ ও অঞ্চল (এরিয়া) ভিত্তিক কললিস্ট চেক এবং গুপ্তচর (সোর্স) অনুসন্ধান করেও কোনো কিছুই যেন কাজে আসছিল না।

এমন একটি মামলার ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করেছেন এসআই আবদুল আনাম। তবে এ মামলাটির অনুসন্ধানের জন্য ঘুরতে হয়েছে ২১টি জেলা।

এ ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্ত পাঁচজন চোর ও তিনজন স্বর্ণ ব্যবসায়ীসহ আট জনকে আটক করা হয়েছে। সেই সঙ্গে চুরি যাওয়া ১১২ ভরি স্বর্ণ ও ৭ লাখ ৫৫ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়। তবে সার্বিক দিক নির্দেশনায় ছিলেন সদর থানার ওসি আবদুল হাই।

এছাড়া সহযোগিতায় ছিলেন থানার এএসআই আহসান হাবীব ও আবদুল মালেক এবং ডিএসবি কাইয়ুম খাঁন।

রোববার দুপুর সাড়ে ১২টায় নওগাঁ পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়।

এজাহার সূত্রে জানা গেছে, নওগাঁর বিশিষ্ট ব্যবসায়ী তৌফিকুল ইসলাম বাবু। শহরের সোনাপট্টিতে অবস্থিত তার দুটি স্বর্ণের দোকান ‘বাংলাদেশ জুয়েলার্স ও মেসার্স রুমি জুয়েলাস’।

গত বছরের ১-৩ নভেম্বর তারিখের মধ্যে ঠাকুর ম্যানসন মার্কেটে অবস্থিত ‘মেসার্স রুমি জুয়েলার্স’ দোকানে চুরি সংঘটিত হয়। আর এ স্বর্ণের দোকানে চুরি করতে পাশের ‘আঁখি ইলেকট্রনিক’ দোকানের তালা খুলে ভিতরে প্রবেশ করে চোরেরা। এরপর সিঁদ কেটে স্বর্ণের দোকানে প্রবেশ করে।

স্বর্ণের দোকানে থাকা চারটি সিন্দুকের মধ্যে দুইটির তালা ভেঙে প্রায় ৫৯২ ভরি স্বর্ণ যার মূল্য প্রায় দুই কোটি ৬৯ লাখ ১০ হাজার ২২৫ টাকা চুরি হয়। ঘটনায় ৪ নভেম্বর থানায় অজ্ঞাতনামা চোরদের বিরুদ্ধে মামলা হয়। মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব পান এসআই আব্দুল আনামকে। শুরু হয় ঘটনার রহস্য উন্মোচন।

এসআই আব্দুল আনাম বলেন, সিসি টিভির ভিডিও ফুটেজ, এরিয়া ভিত্তিক কললিস্ট চেক এবং সোর্সের মাধ্যমে অনুসন্ধান কোনো কিছুই যখন কাজে আসল না তখন কৌশল পরিবর্তন করলাম। অজানা উদ্যেশ্যে ঘুরতে শুরু করলাম।

প্রথমে বগুড়া জেলা। তারপর নাটোর ও পাবনা জেলা। এরপর পর্যায়ক্রমে জয়পুরহাট, রাজশাহী, সিরাজগঞ্জ, কুষ্টিয়া, ঝিনাইদহ, যশোর, খুলনা, মুন্সিগঞ্জ, বরিশাল, ঝালকাঠি, পিরোজপুর, নড়াইল, টাঙ্গাইল, গাজীপুর, গোপালগঞ্জ, মাদারিপুর, ঢাকা ও বাগেরহাটসহ ২১টি জেলায় ঘুরেছি।

তিনি বলেন, পিরোজপুর জেলার ভাণ্ডারিয়া থানার মাটিভাঙ্গা গ্রামের একটি জঙ্গলে এক সপ্তাহ ধরে আত্মগোপনে ছিলাম একজনকে আটকের জন্য। সে অপারেশনে অবশ্য ব্যর্থ হয়ে ফিরতে হয়েছে। এরপর বাগেরহাট জেলার শরনখোলায় যাই।

এসআই বলেন, সেখানকার স্থানীয় কয়েকজনকে স্বপন ফরাজির (৪১) ছবি দেখানো হয়। তিনি আন্ত:জেলা চক্রের চোর হিসেবে পরিচিত। এ উপজেলার খোন্তাকাটা গ্রামে তার বাড়ি। ১ ডিসেম্বর তারিখে তাকে আটক করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বর্ণ চুরির কথা শিকার করে এবং তার সহযোগীদের নাম বলে।

তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিত্বে একই এলাকার ফজলুল হকের দুই ছেলে রুস্তম আলী (৫৭) ও আবুল কালামকে (৩৭) আটক করা হয়। এরপর তাদের ঢাকায় নিয়ে আসা হয়। রুস্তমের কাছ থেকে স্বর্ণ বিক্রির ১ লাখ ৭৮ হাজার টাকা এবং ঢাকার কদমতলী থানার পূর্ব জোরাইন বাজার ‘আল্পনা জুয়েলার্স’ থেকে ৩১ দশমিক ১১ ভরি স্বর্ণ উদ্ধার করা হয়।

এদের দুজনের তথ্যের ভিত্তিত্বে তাদের সহযোগী পিরোজপুর জেলার ভান্ডারিয়া থানার টিএনটি রোডের হানিফ হাওলাদার (২৬) ও গৌরিপুর গ্রামের ইউনুছ আলীকে (৩৫) আটক করা হয়। সেই সঙ্গে ৫ লাখ ৭৭ হাজার টাকা ও ৩ ভরি স্বর্ণ উদ্ধার করা হয়। ঢাকার আরও তিন স্বর্ণ ব্যবসায়ী জামাল (৩৭), ইয়াকুব আলী (৩৬) ও সাগর আহমেদকে (৩৪) আটক করা হয়। এ ছাড়া জামালের নিকট থেকে গলানো ৭৮ ভরি স্বর্ণ উদ্ধার করা হয়।

অভিজ্ঞতার আলোকে এসআই আব্দুল আনাম বলেন, এ চুরি সংঘটিত করতে তারা দুইটি মোবাইল ফোন ব্যবহার করেছিল। একটি দোকানের ভিতরে এবং অপরটি বাহিরে। তাদের চুরি সংঘটিত হবার পর মোবাইল ফোন ও সিম ভেঙে ফেলা হয়েছিল। যার কারণে তথ্য প্রযুক্তিতে কোনো তথ্য পাওয়া যাচ্ছিল না। চোররা কাছে নামে-বেনামে একাধিক সিম ব্যবহার করে। বিষয়টি ছিল খুবই জটিল ও চ্যালেঞ্জের।

প্রায় ২ মাস ৮ দিন পর এমনই একটি মামলার ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়।

নওগাঁ পুলিশ সুপার মো. ইকবাল হোসেন বলেন, চুরিটি এমনভাবে সংঘটিত হয়েছিল যে কোনো ক্লু আমরা পাচ্ছিলাম না। চোরদের আটক করতে স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা আমাদের সার্বক্ষনিক সহযোগিতা করেছিলেন। এছাড়া পুলিশ কর্মকর্তারাও চেষ্টা করেছেন। যার কারণে দ্রুত আসামিদের আটক করা সম্ভব হয়েছে। সূত্র: যুগান্তর।   

রাজশাহীর সময় ডট কম১৩ জানুয়ারী ২০১৯





© All rights reserved © 2018 rajshahirsomoy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com