বৃহস্পতিবার, ১৮ Jul ২০১৯, ০৬:৩২ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
দেশের বিভিন্ন স্থানে বন্যায় এখন পর্যন্ত ২৫ জনের মৃত্যু এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫, ও উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন, ডাবলু সরকার বগুড়ায় বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী নাবালিকা ধর্ষণ, আটক ধর্ষক রাজশাহীতে জাপান টোব্যাকোর বিজ্ঞাপন সামগ্রী জব্দ”এক লক্ষ টাকা জরিমানা প্রাইভেটকারে করে এসে ছিনতাইয়ের চেষ্টা, ৩ জনকে গণপিটুনি রিফাতকে হত্যার পরিকল্পনা নয়ন বন্ডের বাড়িতে বসেই করেন, মিন্নি ফরিদপুরে টাকার লোভে প্রতিবন্ধী শিশুকে খুন করলো ভাই! এইচএসসির ফল খারাপের আশঙ্কায় কিশোরী আত্মহত্যা এইচএসসিতে ফেল, ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে যুবকের আত্মহত্যা বিশ্বমানের সশস্ত্র বাহিনী গড়ে তুলতে কাজ করছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী
নওগাঁর রাণীনগরে বোরো-ইরি ধান রোপণে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন কৃষকরা

নওগাঁর রাণীনগরে বোরো-ইরি ধান রোপণে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন কৃষকরা

নিজস্ব প্রতিবেদক: নিজস্ব প্রতিবেদক (রাজশাহী-রাব্বানী): শীত ও কুয়াশা উপেক্ষা করে এবার নওগাঁর রাণীনগরের নিন্মাঞ্চলে ইরি-বোরো ধান রোপণে মাঠে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন কৃষকরা। সময়মত সার, বীজ সরবারাহে বদলে যাচ্ছে ক্ষেতের দৃশ্যপট।

দ্রুত বন্যার পানি নেমে যাওয়ায় বুক ভরা আশা নিয়ে এই এলাকার কৃষকরা পুরোদমে শুরু করেছে ইরি-বোরো ধান রোপণের কাজ। জানা গেছে, উপজেলার ৮ টি ইউনিয়নে রোপা-আমন মৌসুমে বন্যার পানি নেমে যাবার সাথে সাথে কৃষকরা তরিঘড়ি করে মাঠে নামেন বীজতলা তৈরি করার জন্য।

চলতি ইরি-বোরো মৌসুমে রাণীনগর উপজেলায় ১৯ হাজার ৫ শ’ হেক্টর জমিতে ইরি-বোরো ধান রোপণের লক্ষ্যে ৮ টি ইউনিয়নে ১২শ’ হেক্টর জমিতে বীজতলা তৈরি করা হয়েছে। স্থানীয় কৃষি বিভাগের জোড়ালো নজরদারী আর কৃষকদের সচেতনতার কারণে রোগবালায় মুক্ত রয়েছে বীজতলা।

ইতিমধ্যে উপজেলার নিন্মাঞ্চলে কৃষকরা পুরোদমে ধান রোপণের কাজ শুরু করেছে। উপজেলার মিরাট, হরিশপুর, ধনপাড়া, মেরিয়া, কুনৌজ, বড়খোল, আতাইকুলা, সিম্বা, খাগড়া, লোহাচূড়া, ছয়বাড়িয়া সহ প্রায় সবগুলো ইউনিয়নের মাঠে খুব তোর-জোর করেই ইরি-বোরো ধান রোপন শুরু করেছে কৃষকরা।

মিরাট ইউনিয়নের হরিশপুর গ্রামের কৃষক আব্দুল হামিদ জানান, আমাদের মাঠে গত এক সপ্তাহ্ আগেই ধান লাগানো শুরু হয়। এবারে আকাশ ভালো থাকায় আগাম ইরি-বোরো ধান রোপন শুরু করেছি। চলতি মৌসুমে প্রায় ৩০ বিঘা জমিতে ইরি ধান রোপণ করবো। ইতিমধ্যে প্রায় ২০ বিঘা জমিতে ধান রোপণ শেষ হয়েছে।

কৃষক রহমান, বেলাল হোসেন, আতাইলা গ্রামের আবুল হোসেন, মকলেছুর রহমান সহ বিভিন্ন এলাকার কৃষক জানান, এবার আবহাওয়া ভাল থাকায় এবং কৃষি অফিসের পরামর্শক্রমে সঠিক পরিচর্চা করার কারণে বীজতলার কোন সমস্যা হয়নি। কয়েক দিনের মধ্যে মাঠগুলোতে পুরোদমে ধান রোপণ শুরু হবে বলে জানান কৃষকরা।

রাণীনগর উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ শহিদুল ইসলাম জানান, চলতি ইরি-বোরো মৌসুমে উপজেলার ৮ টি ইউনিয়নে প্রায় ১৯ হাজার ৫ শ’ হেক্টর জমিতে ধান রোপনের লক্ষ মাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

বীজতলায় রোগ-বালায় দমনের জন্য আলোকফাঁদ সহ বিভিন্ন পদক্ষেপ ও কৃষকরা কৃষি অফিসের পরামর্শ অনুসরণ করায় ধানের চারাগুলো রোগমুক্ত রয়েছে। আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে আবাদের লক্ষ্য মাত্রা পূর্ণ হবে বলে জানান তিনি।

রাজশাহীর সময় ডট কম১১ জানুয়ারী ২০১৯





© All rights reserved © 2018 rajshahirsomoy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com