শুক্রবার, ১৮ জানুয়ারী ২০১৯, ০৮:০৫ অপরাহ্ন

বগুড়ায় মাকে চিকিৎসা করাতে এসে ছেলে খুন, খবর পেয়ে মায়ের মৃত্যু

বগুড়ায় মাকে চিকিৎসা করাতে এসে ছেলে খুন, খবর পেয়ে মায়ের মৃত্যু

রাজশাহীর সময় ডেস্ক : মাকে চিকিৎসা করাতে নিয়ে এসে খুন হলেন ব্যবসায়ি ছেলে আপেল মাহমুদ (২৯)। আর ছেলে নিহত হওয়ার সংবাদে হাসপাতলের বেডেই মারা গেলেন মা। খবর পেয়ে বগুড়ার কাহালু থানা পুলিশ বৃহস্পতিবার রাত ১১ টার দিকে লাশ উদ্ধারের পর বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।

জানা যায়, নিহত বাবসায়ী আপেল গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার ফাঁসিতলা মোঘলটুলি এলাকার সৈয়দ আব্দুল ওয়াহাবের ছেলে। আপেল একটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ছিলেন। তিনি আমদানী-রফতানির ব্যবসা করতেন। শারীরিক অসুস্থ বলে মাকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বগুড়ার টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করায়।

লাশ সনাক্তকারি নিহত আপেলের চাচা আব্দুল করিম জানান, তার ভাতিজা আমদানি-রপ্তানিকারক ছিলেন। মাকে চিকিৎসার জন্য বগুড়া টিএমএসএস হাসপাতালে ভর্তি করান। ওই দিন ব্যাংক থেকে ৯১ লাখ টাকা তুলে নিজের কাছেই রেখেছিলেন। ওই দিন তাকে ফোনে কেউ ডেকে নিয়ে যায় এবং এর পর থেকে সে নিখোঁজ ছিল। দুর্বৃত্তরা টাকার জন্যই হত্যা করে থাকতে পারে। নিহতের সংবাদ পেয়ে তার মা আয়েশা বেগমও মারা গেছেন শুক্রবার দুপুরে। এ বিষয়ে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বগুড়ার কাহালু থানার ওসি শওকত কবির জানান, বৃহস্পতিবার রাত ১১ টায় কিছু লোক থানার এসে খবর দেয় বার-মাইল নামুজা সড়কে ছাতার পুকুরে মাঠে একটি মৃতদেহ পড়ে আছে। পরে উদ্ধার করার পর শুক্রবার সকাল ১০ টায় গোবিন্দগঞ্জ থেকে পরিবারের সদস্যরা এসে লাশ সনাক্ত করে। ধারণা করা হচ্ছে দুর্বৃত্তরা পথে তাকে ধরে নিয়ে এসে হত্যা করে ফেলে রেখেছে। লাশের পাশে গাড়ির চাবি, নগদ কিছু টাকা পড়ে ছিল। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা আছে।

রাজশাহীর  সময়  ডট  কম ১১ জানুয়ারি, ২০১৯





© All rights reserved © 2018 rajshahirsomoy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com