শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০১৯, ১২:৩০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
শেখ হাসিনার অনন্য বিজয়গাঁথা

শেখ হাসিনার অনন্য বিজয়গাঁথা

রাজশাহীর সময় ডেস্ক : আওয়ামী লীগ সরকারের টানা ১০ বছরে এক বিস্ময়কর সাফল্য দেখিয়ে অনন্য ও ঈর্ষণীয় অবস্থান তৈরি করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিচক্ষণতা ও নেতৃত্বের দৃঢ়তা দিয়ে এক নতুন বাংলাদেশ তৈরির লক্ষ্য নিয়ে এগিয়ে চলেছেন তিনি। তার হাত ধরে সফলতা এসেছে কূটনীতি, অর্থনীতি ও সামাজিক উন্নয়নসহ সব ক্ষেত্রেই। বন্ধন তৈরি করেছেন বিশ্বব্যাপী। ভারত, চীন, যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের সঙ্গে সম্পর্ক ও উন্নয়ন অংশীদারিত্বে স্থাপিত হয়েছে মাইলস্টোন।

আপনাদের জানিয়ে রাখি, দেড় বছর পর প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শেখ হাসিনা ইন্দিরা গান্ধী, চন্দ্রিকা কুমারাতুঙ্গা, মার্গারেট থ্যাচার, ভিগদিস ভিনগোদি ও মেরি মেকলিসকে টপকিয়ে পৃথিবীর দীর্ঘতম সময়ের সফল সরকারপ্রধান হিসেবে বিরাজমান হবেন। বিশ্বসভা তাঁর নেতৃত্বকে মর্যাদা দেয়, তিনি মাদার অব দ্য আর্থ। তাঁর নেতৃত্বে বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তীর্ণ হয়েছে অনন্য কৃতিত্বের সঙ্গে।
১৯৭২ সালে হিউস্ট ফ্যালান্ড আর জ্যার্ক পারকিনসন ‘বাস্কেট কেস’ বলে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক সার্বভৌমত্বে সন্দিহান হয়ে যে কটাক্ষ করেছিলেন, অর্থনীতিবিদ, প্রতিষ্ঠান ও দেশ শেখ হাসিনার বাংলাদেশকে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে তিনটি সবচেয়ে দ্রুত প্রবৃদ্ধির অর্থনীতি বলে স্বীকৃতি দিয়ে তার জোরালোভাবে খণ্ডন করেছে।

আগামী পাঁচ বছরে আওয়ামী লীগের জন্য করণীয় হবে নির্বাচনী ইশতেহারের ঘোষণা অনুযায়ী, তারুণ্যের শক্তিকে বিকাশ করার জন্য ১৫ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে অবস্থানকারী তরুণ, তরুণী, যুবক ও যুব মহিলাকে বৃত্তিমূলক ও প্রযুক্তি শিক্ষায় পারদর্শী করে তুলতে হবে। স্কুল থেকে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত শিক্ষাকে একবিংশ শতাব্দীর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় যুগোপযোগী করতে কারিগরি শিক্ষা, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি খাতে অধিকতর বিনিয়োগ করতে হবে। দক্ষতা বৃদ্ধি ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য নতুন প্রকল্পগুলোকে বাস্তবায়ন করতে হবে। ‘কর্মঠ প্রকল্প’-এর অধীনে “স্বল্প শিক্ষিত,স্বল্প দক্ষ,অদক্ষ” শ্রেণীর তরুণদের শ্রমঘন, কৃষি, শিল্প ও বাণিজ্যের উপোযোগী জনশক্তি হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। ‘সুদক্ষ প্রকল্প’-এর অধীনে দক্ষ শ্রমিকের চাহিদা ও যোগানের মধ্যে যে ভারসাম্যহীনতা রয়েছে তা দূর করতে নানামুখি কর্মসূচি গ্রহণ করতে হবে। আওয়ামী লীগের সামনের দিনের চ্যালেঞ্জ হচ্ছে ডিজিটাল যুগে বিশ্ব পরিমন্ডলে সামনের কাতারে থাকা। এই সব পরিকল্পনা বাস্তবায়নে ডিজিটাল ক্ষেত্রে বর্তমানে যে বিপ্লব চলছে, তা ক্রমে যুগোপযোগী করে অগ্রসর করার ভেতর দিয়েই গড়ে উঠবে তরুণ প্রজন্মের স্বপ্নের ডিজিটাল বাংলাদেশ।

জাতির পিতার নির্দেশিত পথ অনুসরণ করে আধুনিক, বিজ্ঞানমনস্ক, প্রযুক্তিনির্ভর, গণতান্ত্রিক, অসাম্প্রদায়িক, দুর্নীতি ও বঞ্চনামুক্ত সমতাপ্রবণ কল্যাণরাষ্ট্র হিসেবে সোনার বাংলাদেশ গঠনে বলিষ্ঠ পদক্ষেপ নেওয়ার পথ খুলে দিয়েছে একাদশতম জাতীয় সংসদ নির্বাচন। শেখ হাসিনার অসাধারণ নেতৃত্ব দৃঢ় পদক্ষেপে বাংলাদেশকে জনকল্যাণের একটি আদর্শ গন্তব্যে নিয়ে যেতে পারবে।সূত্র: বাংলার আমরা

রাজশাহীর সময় ডট কম –০৩ জানুয়ারী ২০১





© All rights reserved © 2018 rajshahirsomoy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com