বুধবার, ২৭ মার্চ ২০১৯, ০৬:৩০ পূর্বাহ্ন

দিশেহারা বিএনপি

দিশেহারা বিএনপি

রাজশাহীর সময় ডেস্ক : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কল্পনাতীত ফল বিপর্যয়ে দিশেহারা বিএনপি। এখন নাজুক পরিস্থিতি থেকে উত্তরণের পথ খুঁজছে। নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে আন্দোলন করতে গিয়ে মামলা-মোকাদ্দমায় জড়িয়ে সাংগঠনিকভাবে দুর্বল হয়ে পড়েছে দলটি। যদিও প্রাথমিকভাবে ভোটের তিন দিন পর আগামিকাল বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশনকে প্রার্থীদের মাধ্যমে স্মারকলিপি দেওয়ার কর্মসূচি নিয়েছে বিএনপি নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। পরবর্তী সময়ে নতুন কর্মসূচি দেওয়ার ঘোষণাও দিয়েছেন তারা। তবে আপাতত হরতাল-অবরোধের মতো বড় কর্মসূচি দেবেন না বলে জানা গেছে।

নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ হয়েছে বলে পুননির্বাচনের কোনো সুযোগ নেই বলে জানিয়ে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। বিদেশি পর্যবেক্ষকরাও নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ হয়েছে বলে অভিমত দিয়েছেন। এই বিজয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, চীনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং ও প্রধানমন্ত্রী লি কেকিয়াংসহ বিভিন্ন দেশের সরকারপ্রধান। এ পরিস্থিতিতে নির্বাচনে ‘কারচুপি’র অভিযোগ তুলে ফলাফল প্রত্যাখ্যান করে পুননির্বাচনের দাবি আদায়ে কতটুকু সফল হবে বিএনপি- এ নিয়ে চলছে জল্পনা-কল্পনা ও হিসাব-নিকাশ।

দলীয় নেতারা বলছেন, কোনোভাবেই এ নির্বাচন মেনে নেবে না বিএনপি জোট। ঐক্যফ্রন্টের সাত বিজয়ী শপথ নেবেন না। ‘সাজানো’ নির্বাচন বাতিলের দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাবেন তারা। ভোট কারচুপির তথ্য-উপাত্ত বিদেশি গণমাধ্যম, কূটনীতিক ও সুশীল সমাজকে অবহিত করা হবে। এ লক্ষ্যে নির্বাচনে অংশ নেওয়া জোটের সব প্রার্থীকে স্ব-স্ব আসনে যাবতীয় অনিয়মের তথ্যপ্রমাণ সংগ্রহ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এসব তথ্য-উপাত্ত সংকলন করে শিগগির তা প্রকাশ করা হবে। এ বিষয়ে প্রস্তুতি নিতে গতকাল মঙ্গলবার বিএনপির আন্তর্জাতিক উইংয়ের নেতারা বৈঠক করেছেন।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘সুষ্ঠু নির্বাচনের আশ্বাস দিয়ে আমাদের নির্বাচনে নিয়ে ভোটের নামে নিষ্ঠুর প্রহসন করা হয়েছে। ভোটের আগের দিন রাতেই ব্যালটে সিল মেরে বাক্স ভর্তি করে জনগণের ভোটাধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছে। নির্বাচন আমরা প্রত্যাখ্যান করেছি। নির্বাচন বাতিলের দাবিতে জোটের প্রার্থীরা নির্বাচন কমিশনে স্মারকলিপি দেবেন। এর পর নতুন কর্মসূচি দেওয়া হবে। কোনোভাবেই ভোট ডাকাতির নির্বাচন মেনে নেওয়া হবে না বলে জানান তিনি।’

সূত্র জানায়, নির্বাচনের ফলাফলে হতাশ বিএনপি নেতারা পরবর্তী করণীয় নিয়ে নিজেদের মধ্যে এবং জোটের সঙ্গে দফায় দফায় আনুষ্ঠানিক ও অনানুষ্ঠানিক বৈঠকে মিলিত হচ্ছেন। সোমবার দলের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটি, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ও ২০ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতারা বৈঠকে মিলিত হন। গতকালও অনানুষ্ঠানিকভাবে দল ও জোটের শীর্ষ নেতারা করণীয় নিয়ে আলাপ-আলোচনা করেন। এসব বৈঠকে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করা উচিত হয়নি বলে মত দেন অনেকে। সূত্র: বাংলার আমরা

 

রাজশাহীর সময় ডট কম– ০৩ জানুয়ারী ২০১৯





© All rights reserved © 2018 rajshahirsomoy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com