মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৮:১২ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
এই নির্বাচন বাংলাদেশকে রক্ষা করার নির্বাচন রাবিতে মিনু বিএনপি প্রার্থী মঈন খানের নির্বাচনী প্রচারণায় হামলা চালিয়েছে যুবলীগ ও ছাত্রলীগ টুঙ্গীপাড়া থেকে বৃহস্পতিবার ফেরার পথে ৭টি পথসভা করবেন প্রধানমন্ত্রী বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুলের গাড়িবহরে হামলা নির্বাচনে সহিংসতা থেকে সবাইকে দূরে থাকার আহ্বান : মার্কিন রাষ্ট্রদূত জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে ট্রেনের বগি লাইনচ্যুত : বগি লাইনে তোলার চেষ্টা আইএসপিআরের নতুন পরিচালক আবদুল্লা ইবনে জায়েদ রাজশাহী নগরীতে বিএনপি’র অফিসে ভাঙচুর, নৌকায় অগ্নিসংযোগ নওগাঁ-৬ (রাণীনগর-আত্রাই) আসনে ভোটে লড়ছেন ৩ প্রার্থী গোলাম মাওলা রনির ফেসবুক আইডি হ্যাক : থানায় জিডি
রাজশাহী নগরীর সাধারণ মানুষ ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বাদশার শুভেচ্ছা বিনিময়

রাজশাহী নগরীর সাধারণ মানুষ ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বাদশার শুভেচ্ছা বিনিময়

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহী-২ (সদর) আসনে নৌকার প্রার্থী হিসেবে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশাকে নিয়ে মাঠে নেমেছেন ১৪ দলের নেতারা। আজ রোববার সকালেই তারা একসঙ্গে নগরীতে সাধারণ মানুষ ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

নগরীর সাহেববাজার বড় মসজিদের সামনে থেকে শুভেচ্ছা বিনিময় শুরুর আগে ফজলে হোসেন বাদশা এমপি সাংবাদিকদের সঙ্গেও কথা বলেন। এ সময় তিনি বলেন, নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে ১৪ দল ঐক্যবদ্ধ। রাজশাহী সদর এখন নৌকার ঘাঁটি। এ আসনে সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের মদদদাতা-পৃষ্ঠপোষকদের মানুষ প্রত্যাখান করবে। উন্নয়নের প্রতিক নৌকা বিজয়ী হবে।

বাদশা বলেন, রাজশাহীতে ১০ বছর আগে সন্ত্রাসের প্রবণতা ছিল। কারা সন্ত্রাস আর জঙ্গিবাদের উত্থান ঘটিয়েছিলেন তা সাধারণ মানুষ জানেন। আমরা ১০ বছরে সন্ত্রাসের প্রবণতা কমিয়ে রাজশাহীতে শান্তি ফিরিয়ে এনেছি। এখন সন্ত্রাস নেই। তারপরেও যারা জঙ্গিবাদকে প্রশ্রয় দিয়েছিলেন, তারা চোরাগুপ্তভাবে সন্ত্রাসের প্রবণতা চালাতে পারেন। তাদের নিরাপত্তা বাহিনী প্রতিহত করবে।

নবম ও দশম সংসদ নির্বাচনে মহাজোটের প্রার্থী হয়ে নৌকা প্রতিক নিয়ে নির্বাচিত এই এমপির কাছে সাংবাদিকরা জানতে চান তার সঙ্গে এখনও ১৪ দল আছে কি না। এ সময় সাংবাদিকদের পাল্টা প্রশ্ন করে ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, দেখেন তো সবাই আছেন কি না? দেখতেই তো পাচ্ছেন সবাই গায়ের সঙ্গে গা ঘেঁষে আছেন। আমরা কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করছি। সবাই ঐক্যবদ্ধ রয়েছি।

সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলা শেষ করে রাজশাহী ১৪ দলের সমন্বয়ক, সিটি মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনসহ অন্য নেতারা নগরীর সাহেববাজার জিরোপয়েন্ট ও আরডিএ মার্কেটের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। কুশল বিনিময় করেন সাধারণ মানুষের সঙ্গেও।

এ সময় অন্যদের মধ্যে নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, সহ-সভাপতি শফিকুর রহমান বাদশা, যুগ্ম সম্পাদক রেজাউল ইসলাম বাবুল, ক্রীড়া সম্পাদক মীর তফিকুল ইসলাম ভাদু, ন্যাপের জেলার সভাপতি মুস্তাফিজুর রহমান খান আলম, জাসদের জেলা সভাপতি মুজিবুল হক বকু, নগর বঙ্গবন্ধু পরিষদের সদস্য মো. লিয়াকত আলী, ওয়ার্কার্স পার্টির নগর সম্পাদকম-লীর সদস্য সাদরুল ইসলাম, ফেরদৌস জামিল টুটুল, সদস্য মিজানুর রহমান খান, ছাত্রমৈত্রীর কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক কাজী আবদুল মোতালেব জুয়েল, নগর সভাপতি এএইচএম জুয়েল খান, সম্পাদক স¤্রাট রায়হান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

রাজশাহীর সময় ডট কম০২ ডিসেম্বর ২০১৮





© All rights reserved © 2018 rajshahirsomoy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com