শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯, ০৪:০২ অপরাহ্ন

বেগম জিয়ার মুক্তির সমাবেশে ভোগান্তির শিকার সাধারণ মানুষ, পুলিশের উপর হামলা!

বেগম জিয়ার মুক্তির সমাবেশে ভোগান্তির শিকার সাধারণ মানুষ, পুলিশের উপর হামলা!

রাজশাহীর সময় ডেস্ক :  বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদে ও কারাবন্দী চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে রাজধানীর নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করেছে বিএনপি।

এদিকে জানা গেছে, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অনুমতি ছাড়াই পল্টন এলাকার রাস্তাঘাট বন্ধ করায় জনভোগান্তি সৃষ্টি করে বিএনপির এই সমাবেশে নাখোশ হয়েছেন অত্র এলাকার সাধারণ মানুষ। তারা অভিযোগ করে বলেছেন, রাজনৈতিক উদ্দেশ্য হাসিল করতে জনগণকে জিম্মি করে বিএনপি সমাবেশে করেছে। ভোগান্তির কারণে বিএনপির দাবির প্রতি জনরোষ বাড়বে বলেও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সাধারণ মানুষ।সূত্র: বাংলা নিউজ ব্যাংক

তথ্যসূত্র বলছে, শনিবার (১২ অক্টোবর) দুপুরে বিএনপির এ সমাবেশ শুরু হয়। সমাবেশে সভাপতিত্ব করছেন মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি হাবিব-উন-নবী খান সোহেল। সমাবেশের কারণে পল্টন ও এর আশপাশের এলাকায় তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়। মুহুর্মুহু মিছিল, ছাত্রদল ও যুবদলের অস্ত্র, লাঠির প্রদর্শনীর কারণে পল্টনসহ আশপাশের এলাকার সাধারণ পথযাত্রী, দোকানদার ও ব্যবসায়ীদের মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়। পুলিশের অনুমতি ছাড়াই রাস্তা আটকে দিয়ে এই সমাবেশ বিএনপির সম্মান আরো ক্ষুণ্ণ করবে বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সাধারণ মানুষ। জনসাধারণের ভোগান্তি কমাতে রাস্তা ছেড়ে দিতে অনুরোধ করলে পুলিশের উপর চড়াও হয় বিএনপি কর্মীরা। বিএনপি নেতা-কর্মীদের হামলায় পুলিশের একাধিক সদস্য আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

বিএনপির সমাবেশে ভোগান্তির শিকার হওয়া পথযাত্রী আবুল কালাম বলেন, আজকে বিএনপি সমাবেশের নামে যা করলো তা কোনোদিন ভুলবো না। নেতা-কর্মীরা দলে দলে লাঠিসোটা নিয়ে মিছিল করতে করতে পল্টনে উপস্থিত হয়। রাজনীতির নামে ত্রাস সৃষ্টি করেছে বিএনপির নেতা-কর্মীরা। কাজের সূত্রে প্রতিদিনই আমাকে পল্টনের উপর দিয়ে যাতায়াত করতে হয়। অথচ আজকে যেতে চাইলে ছাত্রদলের কিছু নেতা সাধারণ পথযাত্রীদের যেতে দেয়নি। প্রতিবাদ করায় ছাত্রদলের কিছু নেতা আমাদের সাথে দুর্ব্যবহার করে। পুলিশ সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসলে ঘটনাস্থলে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হয়। রাস্তা বন্ধ করে, এলাকায় ত্রাস সৃষ্টি করা, পুলিশের উপর হামলা করা নিশ্চয়ই রাজনীতির অংশ হতে পারে না।

এদিকে অনুমতিহীন ও ভোগান্তির সমাবেশের বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রিজভী আহমেদ বলেন, আমরা পুলিশের কাছে অনুমতি চেয়েও পাইনি। তাই অনুমতি ছাড়াই সমাবেশ করছি। আর বিএনপির মতো সংগঠনের সমাবেশে একটু-আধটু সমস্যা হতেই পারে। বেগম জিয়ার মুক্তির জন্য জনগণ তো এতোটুকু কষ্ট করতেই পারে! এটি নিয়ে রাজনীতি করার কিছু নেই।

রাজশাহীর সময় ডট কম – ১৪ অক্টোবর, ২০১৯





© All rights reserved © 2019 rajshahirsomoy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com