সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০২:১০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
কেরানীগঞ্জে ‍১২ বছরের শিশু অন্তঃসত্ত্বা, খালুর ধর্ষণে ঘুমিয়ে হাঁটেন ইলিয়ানা, ভক্তরা বলছেন নায়িকাকে ভূতে ধরেছে কাশ্মীর নিয়ে পরমাণু যুদ্ধের হুঁশিয়ারি ইমরানের ! ৩০ লাখ ৫০ হাজর টাকাসহ হুন্ডি ব্যবসায়ী আটক রণবীর কাপুর নয়, রণবীর সিংয়ের সঙ্গেই দেখা যাবে আলিয়াকে! পুলিশকে জনগণের মৌলিক অধিকার, মানবাধিকার ও আইনের শাসনকে গুরুত্ব দিতে হবে: প্রধানমন্ত্রী ভাগ-বাটোয়ারা নিয়ে রাব্বানীর ফোনালাপে তোলপাড় বাংলাদেশকে হারিয়ে টি-টোয়েন্টিতে আফগানদের নতুন ইতিহাস জনগণের মনে পুলিশ সম্পর্কে যেন অমূলক ভীতি না থাকে” প্রধানমন্ত্রী বাঘায় ৪ ইউপি নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমাদানকারি সকল প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ
মঞ্চ কাঁপালেন বাইডেন

মঞ্চ কাঁপালেন বাইডেন

রিয়াজ উদ্দীন : যুক্তরাষ্ট্রের আগামী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট শিবির থেকে মনোনয়ন নিশ্চিত করতে গত বৃহস্পতিবারের লড়াইয়ে প্রায় পুরো সময়টা নিজের দখলেই রাখতে পেরেছেন বর্ষীয়ান রাজনীতিক জো বাইডেন। এদিন তাঁর অন্যতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন নির্বাচনী জরিপে এগিয়ে থাকা অন্য দুই প্রার্থী বার্নি স্যান্ডার্স ও এলিজাবেথ ওয়ারেন। অন্য অনেক ইস্যুতে ঐকমত্য থাকলেও স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে বিতার্কিকদের তীব্র বিভক্তি ছিল স্পষ্ট।

২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে মনোনয়নপ্রত্যাশী ১০ ডেমোক্র্যাট নেতা গত বৃহস্পতিবার টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের হিউস্টনে বিতর্কে অংশ নেন। এটা ছিল ডেমোক্রেটিক দল আয়োজিত তৃতীয় বিতর্ক অনুষ্ঠান। এর আগের বিতর্ক দুটি হয়েছে গত জুন ও জুলাইয়ে। ডেমোক্র্যাটদের তৃতীয় বিতর্ক অনুষ্ঠান হলেও বাইডেন, স্যান্ডার্স ও ওয়ারেন এই প্রথম মুখোমুখি হয়েছেন। নির্বাচনী জরিপে এই তিনজনই শীর্ষে রয়েছেন, যার মধ্যে প্রথম অবস্থানে আছেন বাইডেন, দ্বিতীয় অবস্থানে ওয়ারেন ও তৃতীয় স্যান্ডার্স। তাঁদের মধ্যে বাইডেন সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার আমলে ভাইস প্রেসিডেন্ট ছিলেন।

বিতর্কের বিষয়বস্তুর মধ্যে অন্যতম ছিল স্বাস্থ্যসেবা, জলবায়ু পরিবর্তন, অভিবাসন ও আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ন্ত্রণ। এগুলোর মধ্যে স্বাস্থ্যসেবা নীতি নিয়ে তীব্র বিতর্কে লিপ্ত হন অংশগ্রহণকারীরা। এ ইস্যুতে প্রথমসারির তিন নেতার মধ্যে বাইডেন কথা বলেছেন ওবামা প্রণীত স্বাস্থ্যনীতির পক্ষে। অন্যদিকে ওয়ারেন ও স্যান্ডার্স সবার জন্য স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার পক্ষে বক্তব্য দেন।

সবার জন্য স্বাস্থ্যসেবা চালুর পক্ষে অবস্থান নেওয়া ওয়ারেনের যুক্তি, বর্তমানে মানুষকে চিকিত্সার জন্য গলা কাটা মূল্য দিতে হয়। তাঁর পরিকল্পিত স্বাস্থ্যসেবা কার্যকর করা গেলে সে ক্ষেত্রে শুধু বিত্তবানদের চিকিত্সা ব্যয় বাড়বে।

সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট বাইডেন অবশ্য ওয়ারেনের পরিকল্পনার সমালোচনা করেন। তাঁর মতে, ওবামা প্রণীত ‘অ্যাফোর্ডেবল কেয়ার অ্যাক্ট’ পরিবতর্ন ও পরিবর্ধনের দিকে নজর দেওয়া উচিত। বাইডেন বলেন, ‘আমি মনে করি, ওবামাকেয়ার কার্যকর।’ তাঁর দাবি, ‘আমার পরিকল্পনায় অনেক অর্থ প্রয়োজন, কিন্তু এতে ৩০ ট্রিলিয়ন ডলার লাগে না।’ স্বাস্থ্যসেবাসহ অন্যান্য ইস্যুতে নিজের বক্তব্য তুলে ধরতে গিয়ে তিন ঘণ্টার বিতর্কের বেশির ভাগ সময় স্টেজ নিজের দখলেই রেখেছিলেন বাইডেন।

এদিকে শুধু বাইডেন নন, আরো কয়েকজন ডেমোক্র্যাট নেতা সবার জন্য স্বাস্থ্যসেবা পরিকল্পনার বিরোধিতা করেন। এই যেমন সিনেটর অ্যামি ক্লোবুশার বলেন, ‘আমার মনে হয় না এটা কোনো জোরালো পরিকল্পনা। এটা বাজে পরিকল্পনা।’

বাইডেন, ওয়ারেন ও স্যান্ডার্স ছাড়া বাকি বিতার্কিকরা গতকালের আয়োজনে অংশ নিয়ে অনেকটা খাবি খাচ্ছিল বলে মন্তব্য করেছে কয়েকটি সংবাদমাধ্যম। তবে তাঁদের মধ্যে সাবেক কংগ্রেস নেতা বেটো ও’রুরক আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ন্ত্রণের পক্ষে আবেগ ভরা বক্তব্য দিয়ে বেশ হাততালি কুড়ান। তাঁর নিজ শহর এল পাসোয় গত ৩ আগস্ট বন্দুক হামলায় ২০ জন নিহত হয়। বিতর্কের সঞ্চালক আগ্নেয়াস্ত্র জব্দ করার পক্ষে অবস্থান জানতে চাইলে ও’রুরক বলেন, ‘অবশ্যই আমরা আপনাদের এআর-১৫, আপনাদের একে-৪৭ নিয়ে নেব। আপনার আমেরিকান ভাইদের বিরুদ্ধে আপনি ওগুলো কাজে লাগাবেন, সেটা আমরা কিছুতেই হতে দেব না।’

এ বিষয়ে সিনেটর কামালা হ্যারিস প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রসঙ্গ টেনে বলেন, ‘তিনি ট্রিগার টানেননি, সেটা সত্যি। তবে টুইটে গোলাগুলির কাজটা তো তিনি ঠিকই করে যাচ্ছেন।’

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প জানিয়েছেন, এসব বিতর্ক দেখার কোনো পরিকল্পনা তাঁর নেই। তাঁর মতে, বড় ধরনের ভুল না করলে মনোনয়নপ্রত্যাশীদের মধ্যে শেষ পর্যন্ত বাইডেনেরই জয় হবে।

সূত্র : বিবিসি, এএফপি।

রাজশাহীর সময় ডট কম -১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯





© All rights reserved © 2018 rajshahirsomoy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com