বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০৯:১৬ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বিরাট সংকটের মুখে ভারতীয় ব্যাঙ্কগুলি, সতর্ক করলেন নোবেলজয়ী অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় ভারতে বাবার চেয়ে বেশি বয়সের লোকের কাছে ৫০ হাজার টাকায় বিক্রি নাবালিকাকে, পথের কুকুরদের পেট ভরে মাংস ভাত খাইয়ে জন্মদিন পালন যুবকের রাষ্ট্র শব্দের অর্থ খুঁজছে যোগাযোগ হারানো কাশ্মীর মায়ানমারকে আরও ৫০ হাজার রোহিঙ্গার তালিকা দিল বাংলাদেশ স্ত্রীকে চুম্বনের সময় আটকে গিয়েছিল জিভ, তাই কেটে ফেলতে হয়েছে গয়না বিক্রি করতে চাপ, শ্বশুরবাড়ির মারধরে হাসপাতালে গৃহবধূ বলিউডে যৌন হেনস্তা নিয়ে বিস্ফোরক কৃতী শ্যানন ধর্ষণের বিচার চাওয়ায় পানি-বিদ্যুৎ লাইন কেটে দিল আসামিরা ৪৬ লাখ টাকার রাস্তায় হাত দিলেই উঠে যাচ্ছে কার্পেটিং
শ্বাসরোধ না করার আর্তি জানিয়েছিলেন খাশোগি

শ্বাসরোধ না করার আর্তি জানিয়েছিলেন খাশোগি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ডসংক্রান্ত এক নতুন অডিও রেকর্ডিং প্রকাশ করেছে তুরস্কের সরকারঘেঁষা সংবাদপত্র ডেইলি সাবাহ। প্রতিবেদনে বলা হয়, তুরস্কের গোয়েন্দা সংস্থা থেকে তারা এ রেকর্ডিং হাতে পেয়েছে। এতে খাশোগি হত্যাকাণ্ডের বিস্তারিত কথোপকথন রয়েছে। রেকর্ডিংয়ে হত্যাকারীদের প্রতি খাশোগির শেষ মুহূর্তের আর্তির কথা  প্রকাশ পেয়েছে।

সৌদি রাজপরিবারের কট্টর সমালোচক খাশোগি গত বছর ২ অক্টোবর তুরস্কের ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটে ঢোকার পর থেকে তাঁকে আর দেখা যায়নি। এ ঘটনার আগের দিনগুলোয় তিনি যুক্তরাষ্ট্রে বাস করছিলেন এবং ওয়াশিংটন পোস্টে কলাম লেখক হিসেবে কাজ করছিলেন।

খাশোগির নিখোঁজ হওয়া নিয়ে প্রথমে সৌদি সরকার নানা বক্তব্য দেয়। কিন্তু হত্যাকাণ্ডের প্রমাণ হিসেবে তুরস্ক বিভিন্ন অডিও রেকর্ডিং প্রকাশ করতে থাকায় এবং আন্তর্জাতিক চাপের মুখে শেষ পর্যন্ত সৌদি সরকারপক্ষ স্বীকার করে, তাদের দেশের শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তাদের একটি দল এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে। সৌদি কনস্যুলেটের ভেতরই তাঁকে হত্যা করা হয়। কিন্তু তাঁর দেহাবশেষ কখনোই খুঁজে পাওয়া যায়নি। জাতিসংঘের এক প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, এ হত্যাকাণ্ডে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের জড়িত থাকার বিশ্বাসযোগ্য প্রমাণ আছে এবং তাঁর বিরুদ্ধে অধিকতর তদন্ত হওয়া প্রয়োজন।

ওই হত্যাকাণ্ডের পর তুরস্কের সরকারঘেঁষা সংবাদমাধ্যমগুলো একের পর এক অডিও রেকর্ডিং প্রকাশ করলেও ডেইলি সাবাহ এবার আরেকটি রেকর্ডিং প্রকাশ করেছে। এতে ঘটনার পুরো কথোপকথন রয়েছে। অচেতন হওয়ার আগমুহূর্তে খাশোগি হত্যাকারীদের প্রতি আর্তি জানিয়ে বলেছিলেন, ‘আমার মুখ চেপে ধরবেন না। আমার শ্বাসকষ্ট আছে। আমার দম বন্ধ হয়ে যাবে।’

এর আগে হত্যাকারীদের একজন মাহের মুতরেবের সঙ্গে খাশোগির বাগিবতণ্ডা হয়। রেকর্ডিংয়ে খাশোগির উদ্দেশে মুতরেবকে বলতে শোনা যায়, খাশোগির বিরুদ্ধে ইন্টাপোলের গ্রেপ্তারি পরোয়ানা রয়েছে, সে জন্য তাঁকে রিয়াদে ফিরিয়ে নেওয়া হবে। খাশোগি এর প্রতিবাদ করে বলেন, তাঁর বিরুদ্ধে কোনো মামলা নেই।

রেকর্ডিংয়ে আরো শোনা যায়, মুতরেব ও তাঁর এক সঙ্গী খাশোগিকে ছেলের মোবাইল ফোনে মেসেজ পাঠানোর জন্য চাপ দেন। মেসেজে খাশোগিকে লিখতে বলা হয়, তাঁর খোঁজ না পেলে ছেলে যেন তাঁর জন্য দুশ্চিন্তা না করে। কিন্তু তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দেন, ‘আমি কিছুই লিখব না।’ এরপর আরো চাপ সৃষ্টির জন্য মুতরেব বলেন, ‘আপনি যদি আমাদের সাহায্য না করেন, তবে শেষ পর্যন্ত কী ঘটবে, সেটা তো আপনি জানেন।’ খাশোগি কনস্যুলেটে ঢোকার আগে হত্যাকারীদের একজনকে এমন কথাও বলতে শোনা যায়, ‘পশু উৎসর্গ করা হবে।’ সূত্র : বিবিসি, পিটিআই।

রাজশাহীর সময় ডট কম -১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯





© All rights reserved © 2019 rajshahirsomoy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com