মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০২:৫৮ পূর্বাহ্ন

আমি ভাগ্যবান, একসঙ্গে অনেককে ভালোবাসি, অভিনেত্রী রাধিকা

আমি ভাগ্যবান, একসঙ্গে অনেককে ভালোবাসি, অভিনেত্রী রাধিকা

তামান্না হাবিব নিশু: বি-টাউনের সাহসী অভিনেত্রীদের মধ্যে একদম প্রথম সারিতেই রয়েছেন তিনি। যে সমস্ত অফবিট কিংবা একটু ‘হটকে’ প্রোজেক্টের জন্য বাকি সকলেই একবাক্যে না করে দেবেন, সেটাতেই ঝাঁপিয়ে পড়বেন এই অভিনেত্রী। নিজের সেরাটা দিয়ে অবশ্যই বাকিদের নাকের ডগা থেকে ছিনিয়ে আনবেন নামিদামী পুরস্কার।

খোলামেলা দৃশ্য থেকে সাহসী সংলাপ সবেতেই তিনি সপ্রতিভ। নিজের ‘ডাস্কি’ স্কিন টোন আর বোল্ড লুকের জন্য ইন্ডাস্ট্রিতে আসার পর থেকেই বহু পুরুষের স্বপ্নের নারী তিনি। যে কোনও কঠিন পরিস্থিতি কিংবা প্রকাশ্যে ধেয়ে আসা বাঁকা প্রশ্নকে একগাল হেসে হ্যান্ডেল করতে তাঁর জুড়ি মেলা ভার। তিনি রাধিকা আপ্তে। বলিউডের অন্যতম সফল অভিনেত্রী। কেরিয়ারের গ্রাফও তরতর করে এগিয়ে চলেছে উপরের দিকে। বাংলা-হিন্দি-ইংরেজি-দক্ষিণী-ওড়িয়া ছবিতে অভিনয়ের পাশাপাশি ওয়েব সিরিজেও দারুণ জনপ্রিয় রাধিকা। তবে এ বার কেরিয়ার কিংবা আসন্ন ছবি নয়, নিজের ব্যক্তিগত জীবন নিয়েই প্রকাশ্যে মুখ খুললেন অভিনেত্রী।

রাধিক আপ্তে যে বিবাহিত এ কথা জানেন না তাঁর অনেক ভক্তও। দীর্ঘদিনের বিদেশি প্রেমিক পেশায় মিউজিসিয়ান বেনেডিক্ট টেলরের সঙ্গেই গাঁটছড়া বেঁধেছিলেন রাধিকা। ২০১১ সালে বলিউডে রাধিকার প্রথম ছবি ‘শোর ইন দ্য সিটি’ রিলিজ হয়। তার ঠিক এক বছরের মাথাতেই ২০১২ সালে লন্ডন নিবাসী প্রেমিকের সঙ্গে সাতপাকে বাঁধা পড়েন অভিনেত্রী। এবং সাত বছর পরেও ভীষণ ভাবে এনজয় করেন লং-ডিসট্যান্স রিলেশনশিপ। প্রেম তাঁদের মধ্যে এখনও একদম জমজমাট। কিন্তু একসময় শোনা গিয়েছিল তুষার কাপুরের সঙ্গে ডেট করছেন রাধিকা আপ্তে। নেহা ধুপিয়ার শো-তে এ ব্যাপারে অভিনেত্রীকে জিজ্ঞেস করলে রাধিকা বলেন, এ কথা মোটেই সত্যি নয়।

তবে বেনেডিক্টের সঙ্গে বিয়ে হলেও রাধিকা নাকি বহু পুরুষের প্রেমে পড়েছেন। সম্পর্কও হয়েছে। কিন্তু তারপর সেগুলো এগোয়নি। ভেঙে গিয়েছে কোনও কারণে। সম্প্রতি নেহা ধুপিয়ার টক শো-তে এসে এ কথা নিজেই জানিয়েছেন রাধিকা। তাঁর কথায়, “আমি একই সঙ্গে বহু পুরুষের সঙ্গে প্রেম করেছি। সম্পর্কে জড়িয়েছি। আলাদা আলাদা করে সবকটা সম্পর্কের সঙ্গে ডিল করেছি।” কিন্তু সত্যিই কী এমনটা সম্ভব? নায়িকার সাফ জবাব, “আমি একই সঙ্গে নাচতে এবং অভিনয় করতে ভালোবাসি। তাহলে আমি আলাদা আলাদা মানুষকে আলাদা আলাদা ভাবে কেন ভালোবাসতে পারবো না? আমি তো পেরেছি। আর নিজেকে কোনওদিন এই ভেবে শাস্তি দিইনি যে আমি সাংঘাতিক কিছু ভুল করে ফেলেছি।”

এখানেই থামেননি রাধিকা। তাঁর কথায়, “এক জীবনে তো কত লোকের সঙ্গেই আমাদের দেখা হয়। তাদের মধ্যে অনেকেই ভীষণ চার্মিং। কারও প্রতি শারীরিক আকর্ষণ জন্মায়। কাউকে বা মনের খুব কাছের মানুষ বলে মনে হয়। কারও প্রতি একদম অন্যরকমের শ্রদ্ধা জন্মায়। জীবনে তো এগুলোই রয়েছে উপভোগ করার। তাহলে কেন আমরা সেটা করব না?” রাধিকা জানিয়েছেন, “আট বছর আগে কমন ফ্রেন্ডসদের আড্ডায় বেনেডিক্টকে খুঁজে পাই। তারপর ধীরে ধীরে সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বুঝতে পারি আমাদের মধ্যে ভালো বন্ডিং তৈরি হয়েছে। এরপর বিয়ে করি। মাঝে মাঝেই লন্ডন যাই ওর সঙ্গে দেখা করতে। বেনেডিক্টও ভারতে আসে আমার সঙ্গে দেখা করতে। আমরা তো দিব্যি আছি। অনেক সময়ই নিজেদের প্ল্যান ক্যানসেল করে ঘুরতেও বেরিয়ে যাই, কয়েকটা দিন একসঙ্গে কাটাবো বলে।”

খোলামেলা আড্ডায় রাধিকা বলেন, “monogamy অর্থাৎ একজন নারীকে একজন পুরুষের সঙ্গেই থাকতে হবে এটা কখনও কোনও নির্দিষ্ট নিয়ম হতে পারে না। কারও ইচ্ছে হলে তিনি একাধিক পুরুষের প্রেমে পড়তেই পারেন। আবার কেউ চাইলে একজনের সঙ্গেই থাকতে পারেন। সেটা একান্তই ওই মহিলার ব্যক্তিগত ইচ্ছে-অনিচ্ছের উপর নির্ভরশীল হওয়া উচিত। সমাজের কোনও বেড়াজাল এই নিয়ম বানাতে পারে না।” পাশাপাশি রাধিকা এ-ও বলেন, “আমি তো রোজ সকালে উঠে ভাবি আজ এর সঙ্গে দিন কাটাবো। আমি রোজ নিজের পছন্দ এ ভাবেই তৈরি করতে চাই। খুব ভাগ্যবান আমি যে বেনেডিক্ট আমার স্বামী। ও আমায় ঠিক আমার মতো করেই বোঝে।

রাজশাহীর সময় ডট কম১১ জুলাই ২০১৯





© All rights reserved © 2019 rajshahirsomoy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com