রবিবার, ১৮ অগাস্ট ২০১৯, ০৭:৫৫ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বিশ্বের সব থেকে হ্যান্ডসাম পুরুষের শিরোপা পেলেন হৃত্বিক রণবীরকে প্রকাশ্যে ‘ড্যাডি’ বলে ডাকছেন দীপিকা ! চাঙ্কি পান্ডে কন্যা অনন্যার অভিনয়ের মুগ্ধ পরিচালক পাকিস্তানকে দেওয়া অর্থ সাহায্যের ৪৪০ মিলিয়ন ডলার কেটে নিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ভুটানে রাজকীয় অভ্যর্থনা পেলেন, নরেন্দ্র মোদী অজয়কন্যা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিদ্রুপের শিকার সাতক্ষীরায় খাবারের লোভ দেখিয়ে শিশুকে ধর্ষণ রাজশাহীতে কলেজ শিক্ষার্থী হত্যা মামলার প্রধান আসামী আটক: স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি নিলাদ্রী থেকে বাড়ি ফেরার পথে তরুণী ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষক গ্রেফতার পুনঃনিরীক্ষণে রাজশাহী শিক্ষবোর্ডের ৬৬ পরীক্ষার্থী ফেল থেকে পাস
বাংলাদেশি’ বেদের মেয়ে জ্যোৎস্না’ অঞ্জুু ঘোষের বিজেপিতে যোগদান

বাংলাদেশি’ বেদের মেয়ে জ্যোৎস্না’ অঞ্জুু ঘোষের বিজেপিতে যোগদান

তামান্না হাবিব নিশু : বেদের মেয়ে জ্যোৎস্না’ অঞ্জু ঘোষ কী ভারতীয় নাগরিক, নাকি তিনি বাংলাদেশি, দিনের শেষে এই প্রশ্ন নিয়ে ধোঁয়াশাই থেকে গিয়েছে৷ বুধবার সারা কলকাতাকে চমক দিয়ে বিজেপিতে যোগদান করেছেন জ্যোৎস্না৷ কিন্তু, তার জন্ম এবং বেড়ে ওঠা ও অভিনয় সবই ছিল অধুনালুপ্ত পূর্ব পাকিস্তানে (বর্তমান বাংলাদেশ)৷ আসল নাম অঞ্জলী ঘোষ৷ জন্ম ফরিদপুরে৷ বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার আগে থেকেই বিভিন্ন যাত্রাপালায় অভিনয় করেছিলেন তিনি৷ এখান থেকেই তাঁর চলচিত্র দুনিয়ায় প্রবেশ৷

ভিড়ে ঠাসা সাংবাদিক সম্মেলনে অঞ্জু ঘোষের উপস্থিতি ছিল রীতিমতো চমকদার বিষয়৷ কারণ, তার অভিনীত সেই ছবিটি এখনও দুই দেশেই রেকর্ড বানিজ্যিক সফল সিনেমা হিসেবে চিহ্নিত৷ অঞ্জু দেবীকে নিয়ে একটি নাগরিকত্বের প্রশ্ন উঠে গিয়েছে৷ এই বিষয়ে অভিনেত্রী পরিষ্কার কিছু না জানানোয় জটিলতা বেড়েছে৷ বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ জানিয়েছে, নাগরিত্বের বিষয়ে উত্তর অঞ্জু দেবীই দিতে পারবেন৷ অঞ্জু নিজে বিষয়টি নিয়ে বিশেষ কিছু বলতে চাননি৷ তবে তিনি বলেছেন, তাঁর সবকিছুই ভারতে৷ ভারতেই তাঁর পিতা-মাতা শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন৷

১৯৭২ থেকে ১৯৮১ সাল পর্যন্ত একটানা চট্টগ্রামের যাত্রা ও নাটকে অভিনয় করেছিলেন অঞ্জু ঘোষ৷ তৎকালীন বাংলাদেশি অন্যতম মঞ্চ সফল জুটি হিসেবে পরিচিত হন অঞ্জু-পঙ্কজ বৈদ্য। এর পর থেকেই চলচ্চিত্র দুনিয়ায় প্রবেশ তাঁর৷ বাংলাদেশি নায়িকা হিসেবে তিনি দ্রুত প্রচারের আলোয় উঠতে থাকেন৷ কিন্তু তাঁর অভিনীত ছবিগুলি সামাজিক দৃষ্টিকোণ থেকেও চর্চিত হয়৷ ১৯৮৯ সালে বাংলাদেশের অন্যতম সফল নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনের সঙ্গে জুটি করে অঞ্জু ঘোষ এলেন সাড়া জাগানো ছবি ‘বেদের মেয়ে জোছনা’-তে৷ বাংলাদেশ আলোড়িত হয়ে গেল৷ সেই ধাক্কা লাগল পশ্চিমবঙ্গেও৷ টলিউডে পরে ‘বেদের মেয়ে জ্যোৎস্না’ ছবিতে অঞ্জু ঘোষের বিপরীতে অভিনয় করেন চিরঞ্জিত৷ সেটিও বিপুল জনপ্রিয়তা পেয়েছিল৷ ছবির কল্যাণে অঞ্জু ঘোষ পরিচিত হতে থাকেন পশ্চিমবঙ্গেও৷ পরে বাংলাদেশ ছেড়ে কলকাতায় দীর্ঘ সময় ধরে থাকছেন৷ মঞ্চে অভিনয় করেছেন৷

প্রসঙ্গক্রমে, সিনেমায় জ্যোৎস্নার ‘হিরো’ চিরঞ্জিত বর্তমানে তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক৷ তিনি বারাসত কেন্দ্র থেকে জয়যুক্ত হয়েছেন৷ মঙ্গলবার যখন বেদের মেয়ে জ্যোৎস্না, অঞ্জু ঘোষ বিজেপিতে যোগদান করছিলেন, সেই সময় রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ মন্তব্য করেন, ‘আসল বেদের মেয়ে জ্যোৎস্না’ বিজেপিতে৷ সাংবাদিকরা পালটা প্রশ্ন করেন, একাধিক বেদের মেয়ে জ্যোৎস্না রয়েছে? দিলীপের কৌশলী জবাব, সেটা রাজ্যের এক মন্ত্রী বলতে পারবেন৷

রাজনীতির পুরানো ছাত্ররা বলছেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে একবার ‘বেদের মেয়ে জ্যোৎস্না’ একসময়কার কংগ্রেসি নেতা, এখনকার রাজ্যের এই মন্ত্রী ৷ ১৯৯৮ সালে কংগ্রেস ছেড়ে এসে তৃণমূল কংগ্রেস তৈরি করেছিলেন মমতা৷ মমতার সাফল্য সম্পর্কে অনেকেই সন্দিহান ছিলেন৷ ওই নেতা তাঁকে কৌতুক করেই বলেছিলেন – ‘বেদের মেয়ে জ্যোৎস্না৷’ টলিবাজারে সিনেমাটি খুব নাম করেছে ততদিনে৷ বুধবার অবশ্য ওই নেতাকে যোগাযোগ করা হলে তিনি পুরোনো কথা পাত্তা দিতেই রাজি হননি৷ তিনি বলছেন, ‘‘ধুস্৷ সব বাজে কথা৷

রাজশাহীর সময় ডট কম০৫ জুন ২০১৯





© All rights reserved © 2018 rajshahirsomoy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com