বৃহস্পতিবার, ২২ অগাস্ট ২০১৯, ০১:৫৬ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
রাজশাহী চারঘাটে পুকুরের পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু চারঘাটে নতুন ওসির বিশেষ অভিযানে একদিনে গ্রেফতার ৬৬ জন নানা কর্মসূচিতে ইবিতে গ্রেনেড হামলা দিবস পালিত সাপাহারে ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলার প্রতিবাদে আলোচনা সভা ও র‌্যালী অনুষ্ঠিত একুশে আগস্টের হামলায় নিহতদের স্মরণে মহানগর সৈনিক লীগের শ্রদ্ধা নোয়াখালীতে অস্ত্রসহ আটক-১ ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণে যুবক গ্রেফতার রাজশাহীতে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে বিভিন্ন কর্মসূচি আ.লীগকে নেতৃত্ব শূন্য করতেই গ্রেনেড হামলা: পলক শুভেচ্ছা দূতের পদ থেকে প্রিয়াংকা চোপড়াকে সরাতে পাকিস্তানি মন্ত্রীর আহ্বান
আফ্রিকায় ব্যাঙ দিয়ে প্রেগনেন্সি পরীক্ষা

আফ্রিকায় ব্যাঙ দিয়ে প্রেগনেন্সি পরীক্ষা

রাজশাহীর সময় ডেস্ক : ১৯৩০ থেকে ৭০ এর দশক পর্যন্ত আফ্রিকার সাব সাহারান এলাকা থেকে জেনোপস নামের বিশেষ এক জাতের নখওয়ালা ব্যাঙ দিয়ে প্রেগনেন্সির পরীক্ষা করা হত।

শুনতে খুব অদ্ভুত লাগলেও তখনকার সময়ে এটা ছিল খুব আধুনিক একটি পরীক্ষা। এবং জেনোপস ব্যাঙের মাধ্যমে করা পরীক্ষার ফলাফলও হত নির্ভুল।

ল্যান্সলট হগবেন নামের এক প্রাণীবিজ্ঞানীর কাজই ছিল বিভিন্ন প্রাণীর শরীরের নানা রকমের জিনিস, বিশেষ করে হরমোন ঢুকিয়ে দেওয়া। তার উদ্দেশ্য ছিল এর ফলে ওই প্রাণীর শরীরে কি ধরনের প্রতিক্রিয়া ঘটে সেটা লক্ষ্য করা।

এই ধরনের একটি পরীক্ষার পর, অনেকটা দুর্ঘটনাবশত তিনি আবিষ্কার করে ফেললেন যে এই ব্যাঙের ভেতরে প্রেগনেন্সি হরমোন ঢুকিয়ে দিলে সেটি ডিম পাড়তে শুরু করে দেয়।

পরীক্ষাটি ছিল এরকম: নারী জেনোপস ব্যাঙের চামড়ার নিচে ইনজেকশনের মাধ্যমে নারীর মূত্র ঢুকিয়ে দেওয়া হতো। ৫-১২ ঘণ্টা পর দেখা হতো ব্যাঙটি ডিম পেড়েছে কিনা।

ডিম পাড়লে নিশ্চিত হওয়া যেত যে ওই নারী গর্ভবতী।

রাজশাহীর সময় ডট কম২৬   মে ২০১৯





© All rights reserved © 2018 rajshahirsomoy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com