সোমবার, ২৪ Jun ২০১৯, ০৩:৩৮ অপরাহ্ন

গোলমরিচের ওষুধি গুণ জানলে খাবারে রাখবেন প্রতিদিন

গোলমরিচের ওষুধি গুণ জানলে খাবারে রাখবেন প্রতিদিন

ফারহানা জেরিন এলমা : খাবারে গোলমরিচের গুঁড়া দিলে অনেক বিস্বাদ খাবারও সুস্বাদু হয়ে যায়। বিশেষ করে স্যুপ কিংবা ডিম সিদ্ধ করে উপরে একটু গোলমরিচ ছড়িয়ে নিলে খাওয়ার স্বাদই বেড়ে যায়। আবার কোনো চাইনিজ রেস্তরাঁয় খেতে গেলেও নুডলসের সঙ্গে একটু গোলমরিচ না হলে চলে না।

তবে শুধুই কি স্বাদ বাড়াতে সক্ষম গোলমরিচ? তা কিন্তু নয়। গোলমরিচে এমন কিছু রয়েছে, যা স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে মহৌষোধের মতো কাজ করে। তাই কেবল স্বাদ নয়, স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখেও খাবারে গোলমরিচ দিতে পারেন।

সর্দি-কাশির ক্ষেত্রেও গোলমরিচ অত্যন্ত কার্যকরী, কিন্তু তা ছাড়াও গোলমরিচের বেশ কিছু উপকার রয়েছে।

ত্বকের কোনো রোগ থাকলে তার চিকিৎসায় কাজে লাগে গোলমরিচ। গোলমরিচ গুঁড়া করে স্ক্রাবার হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। এতে ত্বক থেকে মৃত কোষ দূর হয়। ফলে ত্বকে সহজে অক্সিজেন চলাচল করতে পারে এবং রক্ত সঞ্চালন হয়।

পিগমেন্টেশন ও অ্যাকনে দূর করতেও সাহায্য করে গোলমরিচ। গোটা মরিচের খোসা অতিরিক্ত মেদ ঝরাতেও সাহায্য করে। ফলে গোলমরিচ দিয়ে খাবার বানিয়ে খেতে পারেন। শরীরের অতিরিক্ত মেদ ঝরবে সহজেই।

গোলমরিচ হজমে সাহায্য করে। কারণ এটি পেটে হাইড্রোক্লোরিক অ্যাসিড ক্ষরণের মাত্রা বাড়ায়। হজম ঠিক থাকলে কোষ্ঠকাঠিন্য, ডায়রিয়ার মতো সমস্যা এড়ানো যায়। হজমের সমস্যা থেকে অনেক রোগ শরীরে বাসা বাঁধে। ফলে সেগুলো এড়ানো যায়।

যারা অতিরিক্ত মাত্রায় ধূমপান করেন, তাদের জন্য গোলমরিচ খুবই উপকারী। গোলমরিচ তেলের গন্ধ নিয়মিত সেবন করতে পারেন অথবা সরাসরি গোলমরিচ খেলেও ধূমপানের প্রতি আসক্তি কমবে অনেকটাই।

দাঁতে ক্যাভিটি বা ব্যথা থাকলে মুখে গোলমরিচ রাখতে পারেন। ব্যথা নিরাময় করতে গোলমরিচ সাহায্য করে। এমনকি নাক বন্ধ থাকা, হাঁপানি থেকেও মুক্তি দিতে গোলমরিচের জুড়ি মেলা ভার। এক কাপ গরম পানিতে এক টেবিল চামচ গোলমরিচ এবং দুই টেবিল চামচ মধু মিশিয়ে খেলে শ্লেষ্মা দূর হয় এবং গলা ব্যথা কমে।সূত্র:কালের কণ্ঠ।

গোলমরিচ খেলে শরীর গরম হয়ে ঘাম বেশি হয়। ফলে শরীর থেকে অতিরিক্ত টক্সিন কমতে থাকে। ফলে ত্বক ভালো থাকে এবং ওজনও নিয়ন্ত্রণে থাকে।

রাজশাহীর সময় ডট কম৫ মে ২০১৯





© All rights reserved © 2018 rajshahirsomoy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com