সোমবার, ২৪ Jun ২০১৯, ০২:৪৪ অপরাহ্ন

দিনে দিনে বিজেপি মহীরুহ কংগ্রেস বনসাই

দিনে দিনে বিজেপি মহীরুহ কংগ্রেস বনসাই

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ১৯৯৪ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত ভারতে অনুষ্ঠিত ১০টি জাতীয় নির্বাচনে অংশ নিয়েছে বিজেপি। এর মধ্যে এবার নিয়ে চারবার সরকার গঠন করতে যাচ্ছে দলটি।

নরেন্দ্র দামোদর দাস মোদি হচ্ছেন প্রথম অকংগ্রেসীয় প্রধানমন্ত্রী, যিনি তাঁর পাঁচ বছরের মেয়াদ পূর্ণ করে টানা দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় টিকে রইলেন। ১৯৯৬ সালে প্রথম অটল বিহারি বাজপেয়ির নেতৃত্বে দিল্লিতে এনডিও জোট সরকার গঠন করে বিজেপি। দেখা গেছে, একদিকে বিজেপি যেমন চারাগাছ থেকে ক্রমে বিকশিত হয়ে বিশাল মহীরুহে পরিণত হয়েছে, অন্যদিকে শতবর্ষী কংগ্রেস, ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনে নেতৃত্ব দেওয়া কংগ্রেস দিন দিন সংকুচিত হয়ে যেন ক্রমে বনসাই রূপ নিতে যাচ্ছে। এর সমান্তরালে বিজেপির প্রতাপে বাম দলগুলোও যেন দিন দিন শক্তিহীন সামর্থ্যহীন হয়ে পড়ছে। এর বড় প্রমাণ এবার পশ্চিমবঙ্গে ৪৪ আসনের একটিও পায়নি বামেরা।

১৯৮৪ সালে ভারতীয় জনতা পার্টি তথা বিজেপি যখন ভারতের অষ্টম জাতীয় নির্বাচনে প্রথমবারের মতো দুটি আসন পেল তখনকার বিশ্লেষক-পর্যবেক্ষকরা কেউই হয়তো চিন্তা করেননি যে দুই আসনওয়ালা দলটি পরবর্তী ১২ বছরের মধ্যে কেন্দ্রের ক্ষমতায় বসতে যাচ্ছে। ১৯৮৪ তে যেবার বিজেপি দুই আসন নিয়ে হাঁটি হাঁটি পা পা করে যাত্রা শুরু করে ক্ষমতারোহণের রাজনীতিতে, তখন কংগ্রেস পেয়েছিল ৪১৪টি আসন।

পরের নির্বাচনেই অর্থাৎ ১৯৮৯ সালে ২ থেকে লাফ দিয়ে বিজেপির আসন দাঁড়ায় ৮৯-এ। সেবার কংগ্রেস পায় ১৯৫ আসন। এরপর ১৯৯১ সালের জাতীয় নির্বাচনে ৮৯ থেকে বিজেপির আসন দাঁড়ায় ১২০-এ। অর্থাৎ ওপরে উঠতেই থাকে বিজেপি। সেবার কংগ্রেস পায় ২৪৪। তখনো বিশাল দল কংগ্রেস এবং এর বিপরীতে বিজেপি যেন বিরোধী দলে থাকার একটি দলই ছিল যার ক্রমে জনপ্রিয়তা বাড়ছিল। তবে কংগ্রেসসহ অনেক মহলের কাছেই বিষয়টি তেমন গুরুতর ছিল না বোধ করি। কিন্তু তাদের নিশ্চিন্তভাব সহসা বড় ধাক্কা খায় পরের নির্বাচনে, ১৯৯৬ সালে।

১৯৯৬ সালের জাতীয় নির্বাচনে ১৬১ আসন পায় বিজেপি আর কংগ্রেস পায় ১৪০। সেই প্রথম কেন্দ্রে সরকার গঠন করে কট্টর হিন্দুত্ববাদী দল বিজেপি। সাড়ে তিন দশকের মাথায় নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে ২০১৯ সালের নির্বাচনে বিজেপি প্রথমবারের মতো তিন শ আসনের মাইলফলক পার হলো। এবার তারা একাই পেয়েছে ৩০৩ আসন। আর বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ (ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক অ্যালায়েন্স) জোট মোট ৫৪২ আসনের মধ্যে পেয়েছে ৩৫১ আসন।

এর আগেরবার অর্থাৎ ২০১৪ সালের নির্বাচনে বিজেপি পায় ২৮২ আসন। আর বিরোধী দল কংগ্রেস মাত্র ৪৪ আসন নিয়ে চরম ভরাডুবির শিকার হয়।সূত্র:কালের কণ্ঠ।

এবার মোট ১৮ রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে কংগ্রেস কোনো আসনই পায়নি। কংগ্রেসের কোনোই আসন না পাওয়া রাজ্য ও অঞ্চলগুলোর মধ্যে আছে রাজস্থান, অন্ধ্র প্রদেশ, গুজরাট, ওড়িশা, জম্মু ও কাশ্মীর, হিমাচল প্রদেশ, হরিয়ানা, দিল্লি, উত্তরাখণ্ড, আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ, দাদরা এবং নগর হাভেলি, দামান এবং দিউ, লাক্ষাদ্বীপ, মণিপুর, মিজোরাম, সিকিম ও ত্রিপুরা।

রাজশাহীর সময় ডট কম৫ মে ২০১৯





© All rights reserved © 2018 rajshahirsomoy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com