বুধবার, ২২ মে ২০১৯, ০১:০৪ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
ষড়যন্ত্র হয় ভেতর থেকেই, প্রসঙ্গ রাবিতে ভিসি পদে সাময়িক শূণ্যতা নিয়ে মিথ্যাচার, কোর্ট নোটিশ অতঃপর… ফায়ার সার্ভিস উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী যথেষ্ট আন্তরিক; রাজশাহীতে ফায়ার ডিজি রাজশাহীর মোহনপুরে ‘মানসিক প্রতিবন্ধী’ নারীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার নিম্ন মানের চাল কেনার অভিযোগে রাজশাহীতে গোডাউন সিলগালা রাজশাহীতে স্কুলছাত্রী বর্ষা আত্মহত্যার ঘটনায় ওসি প্রত্যাহার কর্ণেল পরিচয়ধারী প্রতারক চক্রের মূল হোতা মাহবুর গ্রেফতার, রিমান্ড শেষে কারাগারে বিএনপি ক্ষমতায় থাকলে কৃষকদের এই দুরাবস্থা অবস্থা হতো না : মিনু ফুটবলকে বিদায় জানালেন জাভি হার্নান্দেজ অডিশনের জন্য অচেনা অভিনেতার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হতে হয়েছিল অদিতিকে রাজশাহী নগরীতে পুলিশের অভিযানে আটক -৩৯
রোজায় কেন খাবেন কালো জিরা ?

রোজায় কেন খাবেন কালো জিরা ?

ফারহানা জেরিন এলমা : রমজানে ইফতারি মানেই মুখরোচক ভাজাপুরি। এ সময় অনেকেই খাবারে সুগন্ধ বাড়াতে কালো জিরা ব্যবহার করেন। এবার রোজা প্রচণ্ড গরমে হওয়ায় ইতিমধ্যেই অনেকেরই ঠাণ্ডা লেগে সর্দি কাশির সমস্যায় একাকার। পেটের সমস্যায় ভুগছেন কেউ কেউ। এক্ষেত্রেও অত্যন্ত কার্যকরী ভেষজ মসলা কালো জিরা।

শুধু রান্নার স্বাদ বাড়াতেই নয়, কালো জিরায় রয়েছে একাধিক আশ্চর্য স্বাস্থ্যগুণ, যেগুলো সম্পর্কে হয়তো আমরা অনেকেই জানি না। আসুন কালো জিরার আশ্চর্য সব স্বাস্থ্যগুণ সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক…

* কালো জিরাতে রয়েছে ফসফরাস যা শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। শরীরের যে কোনো জীবাণুর সংক্রমণ ঠেকাতে কালো জিরা অত্যন্ত কার্যকর।

* পেটের সমস্যা নিরাময়ে কালো জিরা অত্যন্ত কার্যকরী একটি উপাদান। কালো জিরা তেল ছাড়া ভেজে, গুঁড়ো করে নিন। আধা কাপ দুধের সঙ্গে এক চিমটি কালো জিরার গুঁড়ো মিশিয়ে খেতে পারলে পেটের সমস্যা থেকে দ্রুত রেহাই পাওয়া সম্ভব।

* কালো জিরা অ্যান্টি টক্সিনের মতো কাজ করে। তাই প্রস্রাব স্বাভাবিক, নিয়মিত ও পরিষ্কার রাখতে কালো জিরা অত্যন্ত কার্যকর।

* কালো জিরাতে থাকা আয়রন ও ফসফেট শরীরে অক্সিজেনের ভারসাম্য রাখতে সাহায্য করে। শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা থেকে দ্রুত রেহাই পেতে এর ভূমিকা অতুলনীয়।

* অনেকেরই আবহাওয়ার পরিবর্তনে বা বর্ষায় ঠাণ্ডা লেগে মাথা যন্ত্রণা বা মাথা ঝিমঝিম করতে থাকে। এই সমস্যার অব্যর্থ সমাধান হলো কালো জিরা। এক্ষেত্রে কাপড়ের পুঁটুলিতে কালো জিরা বেঁধে সেটি রোদে শুকোতে দিন। ঘণ্টা খানেক রোদে রাখার পর কালো জিরা ভরা কাপড়ের পুঁটুলি নাকের কাছে ধরলে বুকে, মাথায় জমে থাকা শ্লেষ্মা তরল হয়ে সহজেই বেরিয়ে যায়। মাথা ধরা বা মাথা ঝিমঝিমে অস্বস্তিও কেটে যায় দ্রুত।

রাজশাহীর সময় ডট কম১৪ মে ২০১৯





© All rights reserved © 2018 rajshahirsomoy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com