শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০১৯, ১২:২৪ অপরাহ্ন

নায়িকা বানানোর কথা বলে ছাত্রীকে আটকে রেখে তিন মাস ধর্ষণ

নায়িকা বানানোর কথা বলে ছাত্রীকে আটকে রেখে তিন মাস ধর্ষণ

রাজশাহীর সময় ডেস্ক : টাঙ্গাইলের গোপালপুরে সিনেমার নায়িকা বানানোর কথা বলে এক কলেজছাত্রীকে অপহরণ করা হয়। পরে তাকে আটকে রেখে প্রায় তিন মাস ধর্ষণ করার অভিযোগে একজনকে আটক করা হয়েছে।

অপহরণকারী ফরিদপুর জেলার বোয়ালমারী থানার মাইটকুমরা গ্রামের কাইয়ুম শিকদারের ছেলে এসএম আকাশ ওরফে ফারুক শিকদার (২৮)।

রোববার বিকালে গোপালপুরের ভোলারপাড়ার জনগণ অপহৃত ছাত্রীটিকে উদ্ধার করে অভিযুক্ত ফারুক শিকদারকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে দেয়।

সোমবার সকালে মেয়ের বাবার দায়ের করা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন মামলায় পুলিশ আসামিকে টাঙ্গাইল আদালতে পাঠানো হয়।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ২১ জানুয়ারি সকালে গোপালপুর সরকারি কলেজে স্থানীয় এমপির সংবর্ধনা ও নবীনবরণ অনুষ্ঠান থেকে বাড়ি ফেরার পথে ওই ছাত্রীকে রাস্তা থেকে মাইক্রোবাসে তুলে অপহরণ করে ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জে নিয়ে যায়। সেখানে একটি বাসায় আটকে রেখে সিনেমার নায়িকা বানানোর কথা বলে প্রায় তিন মাস তাকে ধর্ষণ করে।

এদিকে অপহৃত ধর্ষিতার বোন কৌশলে মোবাইলে যোগাযোগ করে রোববার দুপুরে তাদেরকে গোপালপুরের ভোলারপাড়া গ্রামে নিয়ে আসে। এ সুযোগে স্থানীয়রা ধর্ষককে গণধোলাই দিয়ে দুজনকেই পুলিশে দেয়।

গোপালপুর থানার ওসি হাসান আল মামুন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, নারী ও শিশু নির্যাতন আইন মামলায় আসামিকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। ওই ছাত্রীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। সূত্র: যুগান্তর।

রাজশাহীর সময় ডট কম১৫ এপ্রিল ২০১৯





© All rights reserved © 2018 rajshahirsomoy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com