বুধবার, ১৯ Jun ২০১৯, ১০:৪৪ পূর্বাহ্ন

মেজাজ হারিয়ে তোপে ধোনি

মেজাজ হারিয়ে তোপে ধোনি

ক্রীড়া ডেস্ক : শেষ বলে দরকার ৪ রান। বল হাতে রাজস্থানের বেন স্টোকস। চেন্নাইয়ের আশা-ভরসার প্রতীক হয়ে ব্যাটিংয়ে মিচেল স্যান্টনার। স্টোকস করলেন ওয়াইড! শেষ বলে দরকার তখন ৩। স্যান্টনার না ঘাবড়ে বোলারের মাথার ওপর দিয়ে মারলেন ছক্কা। রুদ্ধশ্বাস ৪ উইকেটের জয় চেন্নাই সুপার কিংসের। এ জয়টা মহেন্দ্র সিং ধোনিকে নিয়ে গেছে অনন্য চূড়ায়। প্রথম অধিনায়ক হিসেবে তিনি আইপিএলে জয় পেলেন ১০০টি।

শততম জয়ের কীর্তিতে উচ্ছ্বাসে ভাসার কথা ধোনির। অথচ বিদ্ধ হচ্ছেন সমালোচনার তীরে। কারণ স্টোকসের করা শেষ ওভারের চতুর্থ বলে ‘নো নাটক’। কোমর উচ্চতায় বল করেছিলেন স্টোকস। সেটা ‘নো কল’ করেন আম্পায়ার উলহাস গান্ধী। কিন্তু স্কয়ার লেগে থাকা আম্পায়ার ক্রিস গেফানি সায় দেননি তাতে। তাই হাত তুলেও নামিয়ে নেন উলহাস গান্ধী। এটা মানতে না পেরে রবীন্দ্র জাদেজা নো দাবি করেন আম্পায়ারের কাছে। তখন হঠাৎ মাঠে ঢুকে মেজাজ হারান ঠাণ্ডা মাথার ধোনি। ‘নো’ দিয়েও ফিরিয়ে নেওয়ায় তর্ক জুড়ে দেন আম্পায়ারের সঙ্গে। এ জন্য ম্যাচ ফির ৫০ শতাংশ জরিমানা গুনতে হয়েছে ‘মিস্টার কুল’কে। এভাবে মাঠে ঢুকে পড়ায় মাইকেল ভন, মার্ক ওয়াহর মতো তারকাদের পাশাপাশি ভারতীয় সাবেকরাও ধোনিকে নিয়েছেন একহাত।

ইংলিশ সাবেক অধিনায়ক মাইকেল ভনের ক্ষোভ, ‘অধিনায়ক কোনোভাবে মাঠে প্রবেশ করতে পারে না। আমি জানি ধোনি যা খুশি করতে পারে তাঁর দেশে। কিন্তু ডাগ আউট ছেড়ে মাঠে আম্পায়ারের সঙ্গে তর্ক করার কোনো অধিকার কারো নেই।’ ধোনির সমালোচনায় অস্ট্রেলিয়ান সাবেক তারকা মার্ক ওয়াহর টুইট, ‘আইপিএলে মালিকদের পক্ষ থেকে অনেক চাপ থাকে, কারণ অনেক টাকা জড়িত এখানে। কিন্তু দুই অধিনায়ক অশ্বিন (মানকাড আউট) ও ধোনির আচরণ (মাঠে ঢোকা) সমর্থনযোগ্য নয়।’

ভারতীয় সাবেক ক্রিকেটার সঞ্জয় মাঞ্জরেকারও মানতে পারছেন না এমন আচরণ, ‘আমি সব সময় ধোনির ভক্ত। কিন্তু ও যা করেছে, সেটা অন্যায়। এত অল্প জরিমানা দিয়ে পার পেয়ে যাওয়ায় ধোনিকে ভাগ্যবানই বলব।’ ৪৩ বলে ৫৮ করে ম্যাচসেরার পুরস্কার জিতেছেন ধোনিই। ম্যাচ শেষে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছেন তিনি, ‘জয় উপভোগ করেছি, তবে বড় শিক্ষা পেয়েছি এই ভুল থেকে।’ টাইমস অব ইন্ডিয়া

রাজশাহীর সময় ডট কম১৩ এপ্রিল ২০১৯





© All rights reserved © 2018 rajshahirsomoy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com