শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০১৯, ০৬:০৯ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
কওমি মাদ্রাসা থেকেই এ ভূখণ্ডে শিক্ষা শুরু হয়েছিল: প্রধানমন্ত্রী

কওমি মাদ্রাসা থেকেই এ ভূখণ্ডে শিক্ষা শুরু হয়েছিল: প্রধানমন্ত্রী

রাজশাহীর সময় ডেস্ক : এ ভূখণ্ডে কওমি মাদ্রাসা থেকেই শিক্ষা শুরু হয়েছিল বলে জাতীয় সংসদকে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘এ ভূখণ্ডে শিক্ষা শুরু কওমি মাদ্রাসা থেকে। দেশে ২০ হাজারের মতো মাদ্রাসা রয়েছে। ২০ লাখের মতো শিক্ষার্থী রয়েছে। এতিম, গরিব, দরিদ্র ঘরের ছেলেমেয়েরা সেখানে পড়তে যায়। পড়াশোনার একটা জায়গা পাচ্ছে।

সোমবার স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদ অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনা ধন্যবাদ প্রস্তাব এবং প্রথম অধিবেশনের সমাপনী বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, মাদ্রাসাকে আমরা অস্বীকার করতে পারি না। মাদ্রাসা সমাজের একটি অংশ। কাউকে আমরা বাদ দিতে পারি না। দীর্ঘদিন কওমি মাদ্রাসা পাঁচটি বোর্ডে বিভক্ত ছিল। মাদ্রাসা থেকে শিক্ষা নিয়ে কোথাও চাকরি করতে পারত না। এরা তো দেশেরই সন্তান, তাদের আমরা ফেলে দেব? কারিকুলাম তৈরি করে তাদের কর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য উদ্যোগ নিয়েছি।’

তিনি বলেন, ‘দীর্ঘদিনের প্রচেষ্টার ফলে কওমি মাদ্রাসার নেতাদের সমঝোতায় নিয়ে আসি, দেওবন্দের ক্যারিকুলাম তারা গ্রহণ করেছে। দাওরায়ে হাদিসকে আমরা মাস্টার্সের স্বীকৃতি দিয়েছি। ধর্মীয় শিক্ষার পাশাপাশি পার্থিব শিক্ষার ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি। মাদ্রাসা জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসবাদের কারখানা এ অভিযোগের সঙ্গে আমি একমত নই।সূত্র: যুগান্তর।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, হলি আর্টিজানের ঘটনায় দেখা গেছে, ইংরেজি মাধ্যমে পড়াশোনা করা উচ্চবিত্তের সন্তান জঙ্গিবাদে জড়িয়ে পড়েছে। সবকিছু থাকার পরও তারা জঙ্গিবাদে জড়িয়ে পড়েছে। শুধু মাদ্রাসাকে দোষারোপ করলে চলবে না। সংসদে সর্বসম্মতক্রমে আইন পাস করেছি, এ নিয়ে আর কোনো কথা বা প্রশ্ন তো থাকতে পারে না।’

রাজশাহীর সময় ডট কম১২ মার্চ ২০১৯





© All rights reserved © 2018 rajshahirsomoy.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com